লামায় দুর্গম ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা সেবায় সেনাবাহিনী

মোঃ নাজমুল হুদা, লামাঃ
বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসী পাড়া ইউনিয়নের ম্যানলিউপাড়া ও সমথং পাড়ায় (৮নং ওয়ার্ড) গত কয়েকদিন ধরে ব্যাপক আকারে কলেরার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। সেখানে বাঙালি, মুরং ও মার্মা জনগোষ্ঠীর মহিলা ৪৬ জন,পুরুষ ৩৬জন, শিশু ৩৩ জন, বাঙালি ১০জনসহ মোট ১২৫ জন রুগীকে চিকিৎসা দেওয়া সহ বিনা মুল্যে ঔষধ বিতরন করা হয়। সোমবার (২৫ এপ্রিল ২০২২ ইং) বড় কলার ঝিরি প্রাথমিক বিদ্যালয় এ দিনব্যাপী চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

সূত্রে জানা যায়, লামার রুপসী পাড়া আর্মি ক্যাম্পের আওতাধীন মিনতুই পাড়ায় কলেরা বা ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়। বিষয়টি রূপসী পাড়া আর্মি ক্যাম্পে অবগতি করলে রুপসী পাড়া আর্মি ক্যাম্প কর্তৃক আলীকদম জোনকে জানায়।২৫/০৪/২২ ইং উক্ত এলাকার পরিস্থিতির অবনতি হওয়াতে জনসাধারণের সুচিকিৎসার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিএসএস ১০২৫০০ ক্যাপ্টেন নুরুজ্জামান তুর্যের নেতৃত্বে একটি ম্যাডিক্যাল টিম বড় কলার ঝিরি প্রাথমিক বিদ্যালয় যায়।
জনসাধারণের প্রায় শতকরা ৬০ভাগ কলেরায় আক্রান্ত হয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় জীবনযাপন করছেন। ডায়রিয়ায় প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই আলীকদম সেনা জোনের টহল দলের মাধ্যমে এসব পাড়ায় প্রয়োজনীয় ওষুধ বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়।

এ সময় জরুরি চিকিৎসা দেওয়াসহ বিনা মুল্যে ঔষধ বিতরন করা হয়।প্রেরিত মেডিকেল টিম বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে দুর্গতদের সহায়তা করছে বরাবরই।