বেসরকারি স্কুলে আসন খালি থাকলে সরাসরি ভর্তি হওয়া যাবে

অনলাইন ডেস্কঃ
আসন খালি থাকা সাপেক্ষে বেসরকারি স্কুলে সরাসরি ভর্তি হওয়া যাবে। ২০২২ সালের জন্য লটারিতে স্কুল মনোনীত হয়নি ও যারা আবেদন করেনি তাদের ভর্তির জন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। চলতি সপ্তাহে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হবে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, ২০২২ সালের জন্য বেসরকারি স্কুলগুলোতে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত ভর্তির জন্য ২ লাখ ৭৬ হাজার ৬৪১ জন শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় লটারিতে যুক্ত হওয়া সারাদেশের ২ হাজার ৯০৭টি স্কুলে ভর্তির জন্য ৯ লাখ ৪০ হাজার ৮০৭ শূন্য আসনে ৭ লাখ ১৪ হাজার ৮২১টি বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য পচ্ছন্দক্রম অনুসারে আবেদন এসেছে। এতে মোট ৩ লাখ ৬৮ হাজার ৭০৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছে। তাদের মধ্যে ২ লাখ ৭৬ হাজার ৬৪১ জন শিক্ষার্থী বেসরকারি স্কুলের প্রথম থেকে নবম শ্রেণিতে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হলেন।

দেখা গেছে, আবেদন করেও ১ লাখ ১০ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি থেকে বঞ্চিত। এর বাইরে কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থী নানা কারণে অনলাইনে আবেদনও করেনি। তারা আসন খালি থাকা সাপেক্ষে সরাসরি গিয়ে ভর্তি হতে পারবে। যেহেতু লটারিতে অংশ নেওয়া স্কুলে এখনো ৬ লাখ ৬৪ হাজার ১৬৬টি শূন্য আসন রয়েছে। সেজন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বেসরকারি বিদ্যালয়) ফৌজিয়া জাফরীন সোমবার জাগো নিউজকে বলেন, কেউ ভর্তি বঞ্চিত থাকবে না। যারা আবেদন করেও লটারিতে ভর্তির সুযোগ পায়নি তারা আসন খালি থাকা স্কুলে সরাসরি গিয়ে ভর্তি হতে পারবে। অনলাইনে ভর্তির আবেদন করেনি তারাও এ সুবিধা পাবে।

তিনি আরও বলেন, কোনো কোনো স্কুলের আসন শূন্য রয়েছে। সেই তালিকা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে চাওয়া হয়েছে। সেটা পাওয়ার পর এসব প্রতিষ্ঠানে উন্মুক্ত ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করতে মাউশি থেকে নির্দেশনা দিতে বলা হবে। এজন্য একটি নির্দিষ্ট সময় দেওয়া হবে। তার মধ্যে ভর্তির কাজ শেষ করতে বলা হবে।

বেসরকারি স্কুলে ভর্তিতে গত ২৫ নভেম্বর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন চলে ১৬ ডিসেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত। বেসরকারি স্কুলের ভর্তি লটারি ১৯ ডিসেম্বর রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় অবস্থিত নায়েম ভবনে আয়োজন করা হয়।

সূত্রঃ জাগোনিউজ