রামুর সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সুমন চক্রবর্তী পাইলটের অকাল প্রয়াণ

সোয়েব সাঈদ, রামুঃ
অকালে চলে গেলেন রামুর সাবেক ছাত্রনেতা সুমন চক্রবর্তী পাইলট। তিনি উখিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারি হিসাব রক্ষক ছিলেন। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বৃহষ্পতিবার (২৫ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯ টায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে শেষ নিঃশ^াস ত্যাগ করেন।

সুমন চক্রবর্তী পাইলট রামুর ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের তেমুহনী এলাকার পল্লী চিকিৎসক ডা. সমর চক্রবর্তীর বড় ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি বাবা, স্ত্রী, ৩ বছর বয়সী পুত্র সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সুমন চক্রবর্তী পাইলট বৃহষ্পতিবার সকাল থেকে বুকে ব্যথা অনুভব করছিলেন। রাত আটটার দিকে ব্যথা বেড়ে গেলে তাকে কক্সবাজার সদস হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে রাত সাড়ে ৯টায় তার মৃত্যু হয়। সুমন চক্রবর্তীর মৃত্যুর খবরে পুরো এলাকাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে।

জানা গেছে- সুমন চক্রবর্তী পাইলট রামু উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক ও গ্রীন এনভায়রন মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সহ সভাপতি। এছাড়া তিনি বিভিন্ন ধমীয়, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

শুক্রবার সকাল ১১ টায় রামু বাজার সংলগ্ন কেন্দ্রীয় হিন্দু মহাশ্মশানে তার দাহক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

এদিকে সুমন চক্রবর্তী পাইলটকে দেখার জন্য তার বাড়িতে যান- কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আছাদুজ্জামান চৌধুরীসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সর্বস্তুরের জনসাধারণ।

এসএসসি ৯৯ ব্যাচ রামুর সদস্য সুমন চক্রবর্তী পাইলটের মরদেহে শুক্রবার সকালে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়েছেন-এসএসসি ৯৯ ব্যাচ রামু শাখার বন্ধুরা।

এদিকে গ্রীন এনভায়রন মুভমেন্ট কক্সবাজার জেলা শাখার সহ সভাপতি সুমন চক্রবর্তী পাইলট এর মুত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন- সংগঠনের জেলা সভাপতি মোস্তফা আনোয়ার চৌধুরী। তিনি শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।