জেএসসি পরীক্ষা নেওয়ার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্কঃ
এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হলেও মহামারীর মধ্যে চলতি বছর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা নেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে গণভবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ অনুষ্ঠান শেষে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নে একথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, “এখন এসএসসি- এইচএসসি একদম সামনে। আমাদের সব প্রস্তুতি আছে। কিন্ত আমাদের মনে হয় না জেএসসি নেওয়ার মতো খুব একটা সুযোগ থাকছে।”

অন্যান্য শ্রেণীর মতো অষ্টম ও পঞ্চম শ্রেণীতে ক্লাস শেষে মূল্যায়ন হবে বলে জানান তিনি।

“ক্লাস সমাপনী সেটা তো আমাদের হতেই পারে। সেটা সব শ্রেণীর মতোই অষ্টম শ্রেণীতে হবে, পঞ্চম শ্রেণীতেও হবে। কিন্তু সেটা পিইসি-জেএসসি সেরকম করে হবে না। সকল শ্রেণীতে সমাপনী ও মূলায়ন, সেটি হচ্ছে এবং হবে।”

এবার পিইসি পরীক্ষা হবে কি না- সাংবাদিকরা জানতে চাইলে দীপু মনি বলেন, “সেটা তো প্রাথমিকের মন্ত্রী বলবেন। তবে সেটাও সম্ভবত হচ্ছে না।”

এসএসসি ১৪ নভেম্বর, এইচএসসি ২ ডিসেম্বর শুরু

স্কুল-কলেজে শিক্ষার্থী কমে আসার বিষয়ে তিনি বলেন, “আমাদের কিছুটা শিক্ষার্থী কমার একটা কারণ আছে, সেটা হল যারা এবারের পরীক্ষার্থী, তারাই কিন্তু এসএসসি-এইচএসসি তারাই কিন্তু প্রতিদিন ক্লাস করে আসছিল। এখন তাদের সংখ্যা কিন্তু কমাগত কমে আসছে।

“তারা তাদের সিলেবাসটা কমপ্লিট করে ফেলেছে নানাভাবে। অনলাইনে, টেলিভিশনে, কেউ আবার নিজেরা করেছে, অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে করেছে। সেকারণে এখন এই প্রথম তিন সপ্তাহ আসার পরে এখন তারা একটু কম আসছে। এটা খুব স্বাভাবিক।”

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু অপপ্রচারের কারণে অনেক অভিভাবক ভয়ে তাদের সন্তানদের স্কুলে পাঠাচ্ছেন না বলে জানান তিনি।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে গত বছরের মার্চ মাস থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। দেড় বছর পরে গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল-কলেজ খুলে দিয়েছে সরকার।

আগামী ১৪ নভেম্বর এসএসসি এবং ২ নভেম্বর এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা রয়েছে।

স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার তিন সপ্তাহের অবস্থা দেখে বিচার-বিশ্লেষণ করে শীঘ্রই পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান দীপু মনি।

সূত্রঃ বিডিনিউজ