রেকর্ড গড়েই পর্তুগালকে জেতালেন রোনালদো

ক্রীড়া ডেস্কঃ
নতুন ইতিহাস গড়ার সুবর্ণ সুযোগ শুরুতে পেয়ে হারালেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। পর্তুগাল পড়ে গেল হারের শঙ্কায়। দলের অতি প্রয়োজনের মুহূর্তে তিনিই আবার জ্বলে উঠলেন। শেষ দিকে জোড়া গোল করে খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তুললেন অধিনায়ক। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে দিল পর্তুগাল।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বুধবার রাতে ঘরের মাঠে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ২-১ গোলে জিতেছে পর্তুগিজরা। জন ইগানের গোলে পিছিয়ে পড়ার পর শেষ দিকে সাত মিনিটে গোল দুটি করেন রোনালদো।

এর মধ্য দিয়ে আলি দাইকে ছাপিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডটা নিজের করে নেন পর্তুগিজ মহাতারকা।

এবারের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে চার ম্যাচে পর্তুগালের এটি তৃতীয় জয়। আর

তিন ম্যাচ খেলে তিনটিতেই হারল রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ড।

আলি দাইকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ রোনালদো পান ম্যাচের শুরুতেই। দল পায় পেনাল্টি, কিন্তু রোনালদোর দুর্বল স্পট কিক ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন গ্যাভিন বাজুনু। ডি-বক্সে ব্রুনো ফের্নান্দেস ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পেয়েছিল পর্তুগাল।

জাতীয় দলের হয়ে সবশেষ সাত পেনাল্টি শটে এই প্রথম ব্যর্থ হলেন রোনালদো। এর আগে ব্যর্থ হয়েছিলেন ২০১৮ বিশ্বকাপে, ইরানের বিপক্ষে।

২৭তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে আরেকটি সহজ সুযোগ নষ্ট হয় স্বাগতিকদের। কাছ থেকে দিয়োগো জটার হেড বাধা পায় পোস্টে।

৪৩তম মিনিটে পর্তুগাল শিবিরে ভীতি ছড়ান অ্যারন কনোলি। তবে তার প্রচেষ্টায় বল জোয়াও পালিনিয়ার পায়ে লেগে বাইলাইন পেরিয়ে যায়। ওই কর্নার থেকেই দারুণ হেডে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে পাঠান জন ইগান।

গোল শোধে মরিয়া পর্তুগাল বল দখলে আধিপত্য করলেও আক্রমণে তেমন সুবিধা করতে পারছিল না। দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে দূর থেকে বাঁকানো শটে চেষ্টা করেন ফের্নান্দেস, অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পায় আয়ারল্যান্ড। তবে পেছন থেকে প্রতিপক্ষের বাধার মুখে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন কনোলি। তারা পেনাল্টির জোরালো আবেদন করলেও সাড়া মেলেনি।

৭৪তম মিনিটে বের্নার্দো সিলভা অবিশ্বাস্য মিস করায় হতাশা বাড়ে পর্তুগালের। এক জনকে কাটিয়ে ছয় গজ বক্সের বাইরে ফাঁকায় থেকে উড়িয়ে মারেন ম্যানচেস্টার সিটি মিডফিল্ডার।

প্রতিপক্ষের জমাট রক্ষণে কোনো কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। নির্ধারিত সময়ও ফুরিয়ে আসছে, এমন সময় ৮৯তম মিনিটে গনসালো গেদেসের ক্রসে লাফিয়ে হেডে বল জালে পাঠান রোনালদো। দল ফেরে সমতায়, হয়ে যায় তার আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড।

এককভাবে চূড়ায় উঠেও বাঁধভাঙা উল্লাসের সুযোগ নেই, সময় যে ফুরিয়ে আসছে। যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে মিলে গেল সেই গোলও। এবার ডান দিক থেকে জোয়াও মারিওর ক্রসে হেডে জয় নিশ্চিত করলেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। উল্লাসে ভাসলেন রোনালদো, উদযাপনে মেতে উঠল পুরো পর্তুগাল।

দুদিন আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেওয়া রোনালদোর দেশের হয়ে গোল হলো ১১১টি। আলি দাইয়ের গোল ১০৯টি।

চার ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে পর্তুগাল। এক ম্যাচ কম খেলা সার্বিয়া ৭ পয়েন্ট নিয়ে আছে দুইয়ে।

আরেক ম্যাচে আজারবাইজানকে ২-১ গোলে হারানো লুক্সেমবুর্গ তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে।

রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ড ও আজারবাইজানের পয়েন্ট শূন্য।

সূত্রঃ বিডিনিউজ