মিয়ানমারকে সহায়তাকারী দেশের রাষ্ট্রদূতদের প্রতি ‘প্রশ্নবান’ চান মোমেন

অনলাইন ডেস্কঃ
গণহত্যার অভিযোগের মুখে থাকা মিয়ানমারের সামরিক সরকারকে আর্থিকভাবে সহায়তাকারী দেশ ও বহুজাতিক ব্যাংকগুলোর সমালোচনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশে ওইসব দেশের রাষ্ট্রদূতদের এই বিষয়ে ‘প্রশ্নবানে’ ফেলতে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

রোববার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “সম্প্রতি বিদেশি পত্রিকা নিউজ করেছে, আপনাদের নিউজে আসে নাই। মিয়ানমারকে সাতটা বিদেশি ব্যাংক ২৪ বিলিয়ন ডলার গ্যারান্টি দিয়েছে, যখন মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে, তখন এই ব্যাংকগুলো টাকা দিচ্ছে।

“কোন ব্যাংকগুলো… সে সমস্ত দেশ, যারা মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে বড়বড় কথা বলে, তারা টাকা দিয়েছে। এটা কোনোভাবে গ্রহণযোগ্য না।”

বাংলাদেশি গণমাধ্যমকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, “দেখেন কোন দেশ দেয়, ওদের রাষ্ট্রদূতকে ধরেন।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যেখানে জেনোসাইড হচ্ছে টাকা দিচ্ছ কেন? তোমারা মানবাধিকারের কথা বলো, আর তলেতলে এই কাজ করো। এটা গ্রহণযোগ্য না, ঠিক না।”

এদিকে, কক্সবাজারের মত ভাসানচরেও রোহিঙ্গাদের সহায়তা কার্যক্রমে শিগগির জাতিসংঘসহ অন্যান্য সংস্থাঅংশ নেবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এই বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, “আশা করতেছি খুব শিগগির…। ১০ জন রাষ্ট্রদূত যারা (ভাসানচরে) গিয়েছিলেন, আজকে প্রধানমন্ত্রী দফতর, মুখ্য সচিবের সঙ্গে তাদের আলাপ হয়েছে, তারা সবাই ইতিবাচক।

“(ইউএনএইচসিআরের) সহকারী কমিশনার যারা এসেছিলেন, তারাও পজিটিভ। আশা করতেছি যে, একটা কমিটি করে দেওয়া হয়েছে, তারা কবে কখন কি হবে, সেটা ঠিক করবে।

“এক্ষেত্রে আমরা সফল। ভাসানচরে আমরা যে লোক পাঠিয়েছি, ওখানেও তারা অংশ নেবে।”

সূত্র: বিডিনিউজ