করোনায় বুকে জমে থাকা কফ দূর করবে বিশেষ চা

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
করোনা আক্রান্তদের বেশিরভাগই সর্দি-কাশিতে ভুগে থাকেন। অনেক সময় সর্দির কারণে গলা ও বুকে কফ জমতে শুরু করে। কাশির মাধ্যমে কফ উঠে আসে। যাকে বলা হয় মিউকাস বা শ্লেষ্মা। ঠান্ডা বা জীবাণুর আক্রমণে শ্লেষা বা মিউকাস নিঃসরণ বেড়ে যায়।

যেহেতু করোনার প্রভাবে শ্বাসযন্ত্র সংক্রমিত হয়ে থাকে; তাই এ মুহুর্তে ফুসফুসকে শক্তিশালী রাখতে শ্বাসযন্ত্রের কার্যকারিতা বাড়ানোর বিকল্প নেই। এজন্য সর্দি-কাশি থেকে শুরু করে গলা ব্যথাসহ শ্বাসযন্ত্র সুরক্ষিত রাখতে এ সময় বিশেষ পানীয় পান করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরাও।

বিভিন্ন মশলা দিয়ে তৈরি ভেষজ পানীয় শুধু আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই বাড়াবে না বরং করোনা সংক্রমণের কারণে ফুসফুসের শ্লেষ্মাও কমাবে। তেমনই একটি স্বাস্থ্যকর চায়ের রেসিপি জেনে নিন-

উপকরণ

১. আদা কুচি ১ টেবিল চামচ
২. দারুচিনি স্টিক ১ টুকরো
৩. তুলসি পাতা কুচি আধা টেবিল চামচ
৪. ওরিগানো ১ চা চামচ
৫. কালো মরিচ ৩টি
৬. এলাচ ২টি
৭. মৌরি বীজ আধা চা চামচ
৮. আজওয়াইন ১ চিমটি
৯. জিরা আধা চা চামচ

পদ্ধতি

একটি প্যানে আধা কাপ পরিমাণে পানি ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এতে সব উপাদান মিশিয়ে দিন। পানি অর্ধেকে না আসা পর্যন্ত ফুটাতে থাকুন। এরপর চুলা বন্ধ করে কাপে ঢালুন।

এরপর চায়ের মতো পান করুন স্বাস্থ্যকর এই পানীয়। প্রতিদিন এই পানীয়টি দু’বার পান করলে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। সর্দি-কাশি সারবে। শ্লেষ্মার সমস্যাও দূর হবে। সেই সঙ্গে শ্বাস-প্রশ্বাস উন্নত হবে।

এই চা পান করলে যেসব উপকারিতা পাবেন

এই চা তৈরিতে ব্যবহৃত সব উপাদানই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার সমাধান হিসেবে এসব মশলা ব্যবহার করা হয়।

সবারই কমবেশি জানা আছে, আদা, দারুচিনি, তুলসি, কালো মরিচ, মৌরি, জিরা এবং ক্যারাম বীজে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য থাকে।

শুধু করোনা নয় বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে এসব ভেষজ উপাদান। আপনি যদি করোনায় আক্রান্ত হন; তাহলে এ পানীয় ফুসফুসের অতিরিক্ত শ্লেষ্মা দূর করবে। সেইসঙ্গে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়াবে।

সূত্র: জাগোনিউজ