কোয়ারেন্টিন থেকে ‘মুক্তি’ পেয়ে অনুশীলনে সাকিব-মুস্তাফিজ

ক্রীড়া ডেস্কঃ
আরও দুই দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা ছিল সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানের। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে বিসিবির অনুরোধের পর এই দুই ক্রিকেটার ‘মুক্তি’ পেলেন আগেভাগেই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের চূড়ান্ত ধাপের প্রস্তুতির শুরু থেকেই তাই যোগ দিতে পারলেন দুজন।

মঙ্গলবার দুই জনই ছিলেন দলের অনুশীলনে। ঈদ বিরতির পর এ দিনই ছিল দলের প্রথম অনুশীলন। তীব্র বৃষ্টির জন্য অবশ্য বেশ বিঘ্ন ঘটেছে প্রস্তুতিতে।

ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট আসর আইপিএল মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর গত ৬ মে দেশে ফেরেন সাকিব ও মুস্তাফিজ। এরপর থেকে ঢাকার দুটি হোটেলে কোয়ারেন্টিনে ছিলেন তারা। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী যা চলার কথা ছিল ১৯ তারিখ পর্যন্ত।

বিসিবি চিকিৎসব মঞ্জু হোসেন জানান, বোর্ডের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৭ তারিখেই শেষ হয় দুই ক্রিকেটারের কোয়ারেন্টিন।

“তাদের কোয়ারেন্টিন পর্ব শেষ। বিসিবিই কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ কমানোর জন্য আবেদন করেছিল। তারা এখন থেকেই অনুশীলনে থাকতে পারবেন।”

আইপিএলে জৈব-সুরক্ষা বলয়ে ছিলেন সাকিব-মুস্তাফিজ, দেশে ফিরেছেন চার্টার্ড ফ্লাইটে। ফেরার পর কোয়ারেন্টিনে দুই দফায় কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হয়েছেন দুজনই। সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে তাদের জন্য বিশেষ ছাড়ের অনুরোধ করেছিল বিসিবি, যেটিতে সাড়া দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরও।

দেশে থাকা ক্রিকেটারদের নিয়ে গত ২ মে শুরু হয় অনুশীলন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শেষে দেশে ফিরে ঈদের আগে দিন দুয়েক অনুশীলন করেন মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিমরা। এবার শুরু হলো আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি।

সন্তান-সম্ভাবা স্ত্রীর পাশে থাকতে বছরের শুরুতে নিউ জিল্যান্ড সফরে যাননি সাকিব। পরে আইপিএলে খেলার জন্য ছিলেন না শ্রীলঙ্কা সফরেও। একই কারণে দুই ম্যাচের এই টেস্ট ছিলেন না মুস্তাফিজও। তারা ফেরায় টানা ১০ ম্যাচে জয়শূন্য বাংলাদেশ দেশের মাটিতে পাচ্ছে পূর্ণ শক্তির দল।

আগামী ২৩, ২৫ ও ২৮ মে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তিনটি ওয়ানডে। ম্যাচগুলো সম্প্রচার করবে টি স্পোর্টস ও গাজী টিভি।

সূত্র: বিডিনিউজ