মিয়ানমারে বিক্ষোভ দমনে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলি, নিহত ৮

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আট জন নিহত হয়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা ও গণমাধ্যম জানিয়েছে।

বুধবার মধ্যাঞ্চলীয় শহর মায়াং, বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুন ও দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে বিক্ষোভ চলাকালে এ প্রতিবাদকারীরা নিহত হন বলে জানিয়েছে তারা।

মায়াং শহরে বিক্ষোভ চলাকালে নিরাপত্তা বাহিনী গুলি চালায়, এতে ছয় প্রতিবাদকারী নিহত হন বলে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ও গুলিবিদ্ধদের হাসপাতালে নিতে সহায়তা করা এক ব্যক্তি টেলিফোনে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন। শহরটির একজন স্বাস্থ্য কর্মীও ছয় জন নিহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন।

৩১ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি বলেন, “আমরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করছিলাম। আমার বিশ্বাসই হচ্ছে না তারা এটা করেছে।”

ইয়াঙ্গনের নর্থ দাগন এলাকায় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে। ফেইসবুকে পোস্ট করা ছবিতে এক ব্যক্তিকে আধোমুখে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে, তার মাথায় লাগা আঘাত থেকে রক্ত ঝরছিল।

মধ্যাঞ্চলীয় শহর মান্দালয়েও আরেকজন প্রতিবাদকারী নিহত হয়েছেন বলে খবর হয়েছে।

ফেইসবুকে করা পোস্ট অনুযায়ী, এদিন দেশটির আরও প্রায় ছয়টি শহরে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে।

১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে বৃহস্পতিবারের আগ পর্যন্ত মিয়ানমারে ৬০ জনেরও বেশি জান্তাবিরোধী প্রতিবাদকারী নিহত হয়েছেন এবং প্রায় দুই হাজার জন প্রতিবাদকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দেশটির আইনজীবীদের একটি গোষ্ঠী জানিয়েছে।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনী বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে প্রাণঘাতী শক্তি ব্যবহার করছে এবং দেশটিতে অনেক বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠী অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

এসব বিষয়ে মন্তব্যের জন্য যোগাযোগ করা হলে জান্তার মুখপাত্র তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি কিন্তু জানান, রাজধানী নেপিডোতে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় একটি সংবাদ সম্মেলন করবে সামরিক কাউন্সিল।

দেশব্যাপী বিক্ষোভ দমনে প্রতিদিনই আরও বেশি শক্তি নিয়ে মাঠে নামছে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। এতে দেশটিজুড়ে বিরাজমান টালমাটাল পরিস্থিতি দিন দিন আরও অশান্ত হয়ে উঠছে।

সূত্রঃ বিডিনিউজ