‘জবাই জবাই খেলায় ৮ বছরের শিশুর হাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু’

অনলাইন ডেস্কঃ
বগুড়ার ধুনট উপজেলায় আট বছর বয়সী বড়ভাই খেলার ছলে বটি দিয়ে গরু জবাই করা দেখাতে গিয়ে পাঁচ বছরের ছোটভাইয়ের গলা কেটে ফেলেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রোববার বিকেলে ধুনট থানায় বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা এক প্রেস ব্রিফিং-এ ‘জবাই জবাই’ খেলতে যাওয়ায় গত শুক্রবার ফকিরপাড়া গ্রামের শিশু তাওহিদের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন।

নিহত তাওহীদ (৫) ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামে মালেয়শিয়া প্রবাসী আব্দুল গফুর সরকারের ছেলে।

বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বলেন, গত শুক্রবার আনুমানিক সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে তাওহীদ (৫) তার বড় ভাই (৮) তাদের শোবার ঘরে ‘জবাই জবাই খেলছিল’।

এক পর্যায়ে বড় ভাই ধারালো বটি দিয়ে ছোট ভাই তাওহীদের গলায় ধরে গরু জবাই করা দেখাতে যায়। এ সময় অসাবধানতায় গলা কেটে তাওহীদের মৃত্যু হয় বলেন তিনি।

সে সময় তাওহীদের দাদা বাড়ির অদূরে জমিতে কাজ করছিলেন। তার মা দুলালী খাতুন বাড়ির সামনে ঘাস কাটছিলেন এবং বোন সুরভী খাতুন বাড়ির পাশে পুকুরে কাপড় পরিষ্কার করছিলেন।

এ ঘটনায় নিহত তাওহীদের দাদা গত শুক্রবার থানায় আসামির নাম উল্লেখ না করে একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলার তদন্তের প্রয়োজনে পুলিশ ওই শিশুর পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করে বলে জানান পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সময় ওই ঘরে আট বছর বয়সী নিহতের ভাইয়ের উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়। তাকে ধুনট উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল কাফিকে প্রবেশন কর্মকর্তা হিসেবে উপস্থিত রেখে শিশুটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

“জিজ্ঞাসাবাদে ওই শিশু এ ঘটনার বর্ণনা দেয়।”

এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার বলেন, আইন অনুযায়ী ৮ বছরের শিশুর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সুযোগ নেই। এ কারণে ওই শিশুকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সূত্রঃ বিডিনিউজ