জিয়া দেশে সাম্প্রদায়িকতার বীজ বপন করেন : হানিফ

অনলাইন ডেস্কঃ
জিয়াউর রহমান সংবিধানে ধর্মকে টেনে এনে সাম্প্রদায়িকতার বীজ বপন করেছেন বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ আয়োজিত ‘বীর উত্তম সি আর দত্ত : আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

হানিফ বলেন, ক্ষমতায় এসে জিয়াউর রহমান রহমান সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষ চেতনাকে বিনষ্ট করেছিলেন। তিনি ধর্মকে টেনে আনলেন এবং তার মধ্য দিয়ে সাম্প্রদায়িকতার বীজ বপন করলেন। এর পরবর্তীতে রাষ্ট্রপতি এরশাদ সাহেব উনি অষ্টম সংশোধনীর মাধ্যমে এই জিনিসটাকে আরও পাকাপোক্ত করলেন।

এ সময় জিএম কাদেরকে টিপ্পনী কেটে তিনি বলেন, ‘যদিও এখানে জি এম কাদের ভাই আছেন, উনি মনে হয়তো কষ্ট পাবেন। কিন্তু ইতিহাস তো সত্য, ইতিহাসকে অস্বীকার করার উপায় নেই। এটা আমাদের মানতেই হবে।’

জি এম কাদেরের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি আরও বলেন, আজকে কাদের ভাইয়েরা আছেন, তারা যদি তাদের ভুল বুঝতে পারেন, স্বীকার করেন তাহলে ভবিষ্যতে জনগণের জন্য ভালো কাজ করার মানসিকতা তৈরি করতে পারবেন। কিন্তু অতীতের ভুলটাকেই যদি আগলে ধরে রাখতে চান, তবে ভবিষ্যতে আপনাদের দ্বারা জনগণ ভালো কিছু প্রত্যাশা করতে পারে না।

আলোচনা সভায় সি আর দত্তের জীবনী পাঠ করেন জয়ন্ত কুমার দে। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংবাদিক বাসুদেব দত্ত। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রানা দাস গুপ্ত। উষাতন তালুকদারের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদে বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের, অর্থনীতিবিদ ড. দেবপ্রিয় ভট্টচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, সেক্টরস ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব, সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চিত্তরঞ্জন দাস।

সূত্রঃ জাগোনিউজ