রামুতে ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনালে : সাইমুম সরওয়ার কমল এমপিঃ ভালো মানুষ রাজনীতিতে না আসলে, মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক, রামুঃ
রামুতে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেছেন, ভালো মানুষ রাজনীতিতে না আসলে, নির্বাচনে জয়ী না হলে, সমাজে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে না। সামাজিক কর্মকান্ডে জড়িত সুস্থ চিন্তার মানুষরাই সমাজ উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে। ক্রীড়া একটি অঞ্চলের পরিচয়ে ঐতিহ্যের ধারক হিসেবে কাজ করে। ফুটবল অতিপ্রাচীন জনপ্রিয় খেলা। ফুটবল খেলা আয়োজনে জড়িত যুবসমাজ সামাজিক উন্নয়নের মাধ্যমে আঞ্চলিক নেতৃত্বে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করবে। গতকাল শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকালে রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে ‘জয়নাল আবেদীন মেম্বার গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের’ ফাইনাল খেলার ট্রফি বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি এ কথা বলেন। টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলায় ‘নাইক্ষ্যংছড়ি ফুটবল একাডেমী’ চ্যাম্পিয়ান ও ‘কচ্ছপিয়া তিতারপাড়া রিক্সা চালক সমবায় সমিতি’ রানার্সআপ ট্রফি অর্জন করেছে। ‘জয়নাল আবেদীন মেম্বার গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে’ কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের ৩২ টি দলের অংশগ্রহণ নেয়। রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের আল-আমিন মার্কেট খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত ‘জয়নাল আবেদীন মেম্বার গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্টের’ ফাইনাল খেলায় বিজয়ীদের হাতে ট্রফি তোলে দেন, প্রধান অতিথি কক্সবাজার-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ¦ সাইমুম সরওয়ার কমল।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. শফিউল্লাহ, রামু থানা অফিসার ইনচার্জ কে এম আজমিরুজ্জামান, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. ইমরান উদ্দিন, নাইক্ষ্যংছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আবছার, কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, রামু উপজেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়ুয়া, রামু সোনালী অতীত ফুটবল ক্লাবের সাবেক সভাপতি ছিদ্দিক আহমদ, রামু প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি খালেদ শহীদ, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, ইউনিয়ন যুবলীগ আহ্বায়ক নজরুল ইসলাম, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য নুরুল আলম প্রমুখ। ট্রফি বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতা করেন, জয়নাল আবেদীন মেম্বার গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্ট পরিচালানা কমিটির সভাপতি কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য জয়নাল আবেদীন।

ফাইনাল খেলায় উভয় দলে নাইজেরিয়া ও উগান্ডার ১২ জন খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করে। খেলার নির্ধারিত সময়ের প্রথমার্ধে ‘নাইক্ষ্যংছড়ি ফুটবল একাডেমী’ ১০নং পরিহিত নাইজেরিয়ান খেলোয়াড় দূরন্ত সটে গোল করে, দলকে ১-০ গোলে এগিয়ে নেয়। উভয় দলের বিদেশী খেলোয়াড়দের দূরন্তপনা খেলা দর্শকদের মোহিত করে। দ্বিতীয়ার্ধের ৪ মিনিটে গোল করে দলকে ১-১ গোলের সমতায় ফিরিয়ে নিয়ে আসে, ‘কচ্ছপিয়া তিতারপাড়া রিক্সা চালক সমবায় সমিতি’র ৮নং জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় ইব্রাহীম। বিদেশী খেলোয়াড়দের জমজমাট লড়াইয়ে এ খেলা দর্শকরা উপভোগ করে, উচ্ছাসের সাথে। নির্ধারিত সময়ে খেলা এক এক গোলে শেষ হলে, খেলার ফলাফল ট্রাইব্রেকারে নিষ্পত্তি করা হয়। এতে ‘নাইক্ষ্যংছড়ি ফুটবল একাডেমী’ চার সটে ৪ গোল ও ‘কচ্ছপিয়া তিতারপাড়া রিক্সা চালক সমবায় সমিতি’ পাঁচ সটে ৩ গোল করে।

খেলা পরিচলানায় আবুল কাশেম কুতুবী রেফারী, সুমন দে ও বোরহান উদ্দিন সহকারি রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও কামরুল আহসান সোহেল, শিল্টন দত্ত ও শাহ আলম দীর্ঘ এ ফুটবল টুর্ণামেন্টে রেফারী ও সহকারী রেফারীর দায়িত্ব পালন করেছেন।