রোহিঙ্গাদের জন্মসনদ: সুনামগঞ্জে সাবেক প্যানেল মেয়র কারাগারে

অনলাইন ডেস্কঃ
সুনামগঞ্জ জেলা পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে প্রতারণার মাধ্যমে দুই রোহিঙ্গা নাগরিকের পাসপোর্ট নেওয়ার চেষ্টা মামলায় সুনামগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর (প্যানেল মেয়র-১) হোসেন আহমদ রাসেলের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে সুনামগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কুদরত-এ-ইলাহী এ আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সুনামগঞ্জ কোর্ট ইন্সপেক্টর সেলিম নেওয়াজ বলেন, মামলায় পলাতক থাকা আসামি সাবেক এই কাউন্সিলর আদালতে আত্মসমপর্ণ করে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

প্রতারণার মাধ্যমে দুই রোহিঙ্গা নাগরিককে সুনামগঞ্জ পৌরসভা থেকে জন্মসনদ দেওয়ার মামলায় গত বুধবার সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, প্যানেল মেয়র হোসেন আহমদ রাসেলসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট সুনামগঞ্জ সদর জোনের বিচারক কুদরত-এ-ইলাহী। ওই মামলার নির্ধারিত তারিখে আদালত পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করে তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

গত বৃহস্পতিবার একই আদালত থেকে জামিন পান পৌর মেয়র নাদের বখত ও আইনজীবী কাওসার আলম। নাদের বখত এ ঘটনায় নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেছেন, যখন এসব সনদপত্র দেওয়া হয় তখন তিনি ঢাকায় ছিলেন। মেয়রের দায়িত্বে ছিলেন পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর (প্যানেল মেয়র-১) হোসেন আহমদ রাসেল। তাই এ প্রক্রিয়ার কোনোভাবেই তিনি যুক্ত নন।

সূত্রঃ সমকাল