রামুর গর্জনিয়া যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদের উপর সন্ত্রাসী হামলা

                            হামলার নিন্দা ও জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদ ডাকাত দলের হামলায় গুরতর আহত হয়েছেন। পুলিশ ও স্থানীয়রা তাকে ঘটনাস্থল থেকে মূমূর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নের মাঝিরকাটা স্টেশনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ব্যক্তিগত কাজে ওই এলাকায় যান যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদ। দোকানে বসে স্থানীয় ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিনের সাথে কথা বলছিলেন তিনি। এসময় ওই এলাকার সম্প্রতি জেলফেরত চিহ্নিত ২ সন্ত্রাসী ডাকাত রুবেল ও ডাকাত রহিমের নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ চক্র দেশীয় অস্ত্র ও লাটি-সোটা নিয়ে অতর্কিতভাবে তার উপর হামলা চালায়।

আহত হাফেজ আহমদের স্বজনরা জানিয়েছে- হামলাকারিরা তাকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও লাটি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে গুরতর জখম করেন। রক্তাক্ত অবস্থায় হাফেজ আহমদ পালিয়ে পাশর্^বর্তী একটি বাড়িতে অবস্থান নেয়। খবর পেয়ে iগর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ফরহাদ আলীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ও স্থানীয় জনতা হাফেজ আহমদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, হামলার বিষয়টি সত্য। তিনি আহত যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদকে দেখতে গিয়েছেন। তার মাথায় ধারালো দা এর কুপ ও শরীরের বিভিন্নস্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। তিনি এ ঘটনাকে নিন্দনীয় উল্লেখ করে দোষিদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ক্ষুব্দ এলাকাবাসী অবিলম্বে এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

এদিকে গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদের উপর বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও হামলাকারিদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন-রামু উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম, সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়ুয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এডভোকেট মোজাফ্ফর আহমদ হেলালী, সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম কাজল, তাঁতীলীগ সভাপতি নুরুল আলম জিকু, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, ওলামালীগ সভাপতি মাওলানা নুরুল আজিম, সাধারণ সম্পাদক জামাল হোছাইন আনছারী, উপজেলা মৎস্যজীবি সভাপতি সুযশ বড়ুয়া টাপু, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগ সভাপতি মিজানুল হক রাজা, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হক বাবু, মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ সভাপতি কামরুল, সাধারণ সম্পাদক জাহেদ, ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন ও মোহাম্মদ নোমান, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ সভাপতি একেরামুল হাসান ইয়াছিন, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোতালিব রায়হান, বঙ্গবন্ধু ছাত্র ফেডারেশন সভাপতি মাকছুদুর রহমান সাগর, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রিয়াদ প্রমূখ।