গর্জনিয়ায় আন্ত: ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন- তিন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী অংশ নিতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরীঃ
রামুর গর্জনিয়ায় আন্ত: ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০১৬ সম্পন্ন হয়েছে।
২০ ফেব্রুয়ারি সকালে ইউনিয়নের ৮টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অংশ গ্রহণে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তৈয়ব উল্লাহ চৌধুরী।

এসময় পোয়াংগেরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব সুলতান আহমদ চৌধুরী, প্রধান শিক্ষক ও আয়োজক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক হেলালী, অবসরপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষক আহমদুর রহমানসহ অন্যান্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দিনব্যাপি অনুষ্ঠিত এ বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় ৩৩টি ইভেন্টে ২৬৪ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশ নেয় বলে আয়োজক কমিটি সূত্র নিশ্চিত করেছেন। বিকেলে সাড়ে ৫টায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার তুলে দেন ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নুরুল আলমসহ অতিথিবৃন্দ।

এদিকে উক্ত প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাকি তিনটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টরা। প্রতিষ্ঠানগুলো হল, গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা (ইবতেদায়ি বিভাগ), মাঝিরকাটা কিন্ডার কার্টেন দাখিল মাদ্রাসা (ইবতেদায়ি বিভাগ) ও গর্জনিয়া বিদ্যাপীঠ।

গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আলাউদ্দিন বলেন, আন্ত: ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০১৬ সম্পর্কে তারা কিছুই জানেন না। একই কথা জানালেন মাঝিরকাটা কিন্ডার কার্টেন দাখিল মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজী মোহাম্মদ ইসলাম।
গর্জনিয়া বিদ্যাপীঠের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুল্লাহ আল মামুন জানিয়েছেন, গত বছরের আন্ত: ইউনিয়ন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় তারা অংশ গ্রহণের সুযোগ পেলেও রহস্যজনক কারণে এ বছর বিষয়টি একেবারেই গোপন রেখেছিলেন আয়োজক কমিটি। যার ধরুণ শিক্ষার্থীরা ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে নিজেদের মান যাছাই-বাছাই করা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। বিষয়টি খুবই দুঃখ জনক।

এ ব্যাপারে আয়োজক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক হেলালী বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে এমনটা হয়েছে। তবে সরকারি একটি বিদ্যালয়ও বাদ যায়নি।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে রামু উপজেলার সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সেলিমগীর হোসেন জানিয়েছেন, উপজেলার গত সমন্বয় সভায় তিনি ছিলেন না। তাই আন্ত: ইউনিয়ন প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান নিয়ে কি সিদ্ধান্ত হয়েছে তা অবগত নয়। তবে গর্জনিয়ায় তিনটি বিদ্যালয় কেন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারলো না এ ব্যাপারে খোজ খবর নিবেন।