কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা মুক্ত সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া

খালেদ শহীদ, রামুঃ
মনোবল ও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা মুক্ত হলেন সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া। সোমবার (২৯ জুন) কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাবে তৃতীয় বার করোনা টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট আসে তাঁর। সৃষ্টিকর্তার দয়া, চিকিৎসকদের পরামর্শ এবং শুভার্থীদের সহযোগিতায় অবশেষে আমরা করোনামুক্ত। জানালেন, মাছরাঙা টেলিভিশনের কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও বাংলানিউজটোয়েন্টিফোরডটকম-এর স্টাফ করেসপন্ডেন্ট সুনীল বড়ুয়া।

সুনীল বড়ুয়া জানান, ৪ ও ৫ জুন সামান্য জ্বর ছিল। ৮ জুন নমুনা দিলে ১০ জুন রিপোর্ট আসে, আমার ও ছোটভাই অভি বড়ুয়া করোনা পজেটিভ। গভীর রাতে একই সঙ্গে দুইজনের করোনা পজেটিভ হওয়ার খবরে হতভম্ব হয়ে পড়ি আমি ও আমার পরিবার। তবে মনোবল হারায়নি। শেষ পর্যন্ত জটিল কোনো উপসর্গ দেখা যায়নি আমাদের কারও।

দুই দিন পর (১৩ জুন) আমাদের সংস্পর্শে আসা পরিবারের তিন শিশুসহ সাত সদস্যের নমুন সংগ্রহ করে, কক্সবাজার পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। তাদের রিপোর্টও নেগেটিভ আসে। হোম আইসোলেশনে থেকেই আমরা চিকিৎসা সেবা নিয়েছি। মেনেছি কঠোর স্বাস্থ্যবিধি।

রামু প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুনীল বড়ুয়া জানান, নানা উদ্বেগ-উৎকন্ঠায় তিন সপ্তাহেরও বেশি দুঃসময়ে কাটিয়েছি। পরম করুনাময় সৃষ্টিকর্তা’র দয়া, আমরা এখন করোনা মুক্ত। আমাদের মতো একে একে সুস্থ হয়ে উঠুক সবাই, সৃষ্টিকর্তার কাছে এই প্রার্থনা করি।

কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া বলেন, আমার সহকর্মী ও প্রজন্ম ৯৫’র বন্ধুসহ এই দুঃসময়ে স্বশরীরে এসে, ফোন করে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে, কমেন্ট করে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন, সাহস দিয়ে শুভ কামনা করেছেন, আমার সেইসব সহকর্মী, বন্ধু, আত্বীয়স্বজন, শুভার্থীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি, এই দু:সময়ে সার্বক্ষনিক আমাকে চিকিৎসা সেবা সহ নানা পরামর্শ দিয়েছেন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া, রামু হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. ওয়ালিউর রহমান, কক্সবাজার জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল মজিদের প্রতি। দুঃসময়ে মূল্যবান পরামর্শ ও খোঁজ নিয়েছেন, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল। তাঁদের প্রতিও বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ মুক্ত সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া বলেন, এই বিপদে ফোনে আমাকে মানসিক শক্তি-সাহস দিয়েছেন
রামু ও কক্সবাজারের অসংখ্য সহকর্মী, বন্ধু ও শুভার্থীরা। অভয়বাণী দিয়ে সার্বক্ষনিক আমার পাশে ছিলেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

সাংবাদিক সুনীল বড়ুয়া আমেরিকা ভিত্তিক আন্তজার্তিক অনলাইন নিউজ পোর্টাল বেনারনিউজের স্ট্রিংগার হিসাবে কর্মরত আছেন। এ ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ বেতার, কক্সবাজার কেন্দ্রের অনুষ্ঠান ঘোষক, সংবাদ পাঠক ও নাট্যশিল্পী এবং কক্সবাজার বেতার রেডিও এনাউন্সারস ক্লাবের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়ন ও কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সদস্য।