রামুতে গর্ভবতী মায়েদের চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছে সেনাপরিবার কল্যাণ সমিতি

খালেদ শহীদ, রামুঃ
মুজিববর্ষ ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে রামুতে ১০০ জন গর্ভবতী মহিলাকে চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছে সেনা পরিবার।

সেনা পরিবার কল্যাণ সমিতি কক্সবাজার অঞ্চলের সভানেত্রী বেগম শারমিন মাঈন প্রধান অতিথি হিসেবে এ অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন।

মঙ্গলবার (২৩ জুন) রামু উপজেলায় গর্ভবতী মায়েদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা, করোনা পরিস্থিতিতে গর্ভকালীন নিরাপত্তার বিষয়ে সচেতনতা তৈরী ও খাদ্যদ্রব্য বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করে কক্সবাজার অঞ্চলের সেনাপরিবার কল্যাণ সমিতি।

রামু সেনা নিবাস সূত্রে জানা গেছে, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সেনাপরিবার কল্যাণ সমিতি কক্সবাজার অঞ্চলের উদ্যোগে ১০০ জন গর্ভবতী মহিলার স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং অস্থায়ী ল্যাবে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা, সচেতনতামূলক নির্দেশিকা প্রদান সহ চিকিৎসা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

রামু সেনা নিবাসের বিশেষজ্ঞ মহিলা চিকিৎসকদল মাতৃকালীন এই চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। এ সময় বিশেষজ্ঞ মহিলা চিকিৎসক ও গাইনোকলজিস্ট করোনাকালীন সময়ে প্রসূতি মায়েদের স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ে সচেনতামূলক বক্তব্য প্রদান করেন।

অভাবী প্রসুতি মায়েরা সেনা পরিবার কল্যাণ সমিতির চিকিৎসা ও খাদ্য সহায়তা পেয়ে কল্যাণমূলক কাজের ভূয়ষী প্রশংসা ও দোয়া করেন।

সেনা পরিবারের সদস্যরা জানান, সেনা পরিবার কল্যাণ সমিতি (সেপকস) সেনাবাহিনীর একটি কল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কর্মরত জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার, নন-কমিশন্ড অফিসার, অন্যান্য পদবীর সৈনিক ও বেসামরিক কর্মচারীর পরিবারের সদস্যদের দ্বারা পরিচালিত প্রতিষ্ঠান। সেনা পরিবারের সদস্যরা সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, অর্থনৈতিক ও অন্যান্য কল্যাণমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করেন এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে।

কল্যাণমূলক এই প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। পাশাপাশি দুঃস্থ, অসহায় জনসাধারণের জন্য ত্রাণ ও বিনামূল্যে চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনা করে। ইতোপূর্বে সেনাপরিবার কল্যাণ সমিতি কক্সবাজার অঞ্চলের উদ্যোগে গরীব ও অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ ও শীতবস্ত্র বিতরণসহ বিভিন্ন সহযোগিতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

কক্সবাজার জেলায় মাসব্যাপী এ মহতী কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানান, সেনা পরিবারের সদস্যরা।