স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাক এড়াতে প্রতিদিন একটি কমলা খান

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
এমন একটি ফল, যা দেখলে চোখে প্রশান্তি মেলে। সুন্দর রং ও গন্ধের এই ফলটি আমাদের শরীরের জন্য ভীষণ উপকারী। গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন একটি কমলার রস পান করলে তা মারাত্মক স্ট্রোকের ঝুঁকি হ্রাস করে। ব্রিটিশ জার্নাল অফ নিউট্রিশনে প্রকাশিত এই সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, যারা প্রতিদিন অন্তত একটি কমলার রস খান তাদের মস্তিষ্কের জমাট বাঁধার ঝুঁকি ২৪ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে।

এর চিনি ক্ষতিকর নয়
দীর্ঘকাল ধরে টাটকা ফলের রসকে স্বাস্থ্যকর হিসাবে ভাবা হচ্ছে। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ফলের রসে থাকা প্রাকৃতিক চিনির কারণে মানুষেরা এটি ক্ষতিকর ভাবতে শুরু করেছে। কিন্তু কমলার রসে থাকা চিনি মোটেও ক্ষতিকর নয়। গবেষকরা লক্ষ করেছেন যে, স্ট্রোক প্রতিরোধের ক্ষেত্রে এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক বেশি।

রক্তনালীকে রক্ষা করে
শুধু কমলার রস নয়, অন্যান্য ফলের রস খেলেও তা আমাদের রক্তনালীগুলোকে সুরক্ষিত রাখার কাজ করে। কমলার রসে প্রাকৃতিকভাবে যুক্ত অনেকগুলো উপাদান রয়েছে যা রক্তনালীর রোগ থেকে রক্ষা করতে পারে।

কমলার পুষ্টির প্রোফাইল

২৪০ মিলি কমলার রসে থাকে-

ক্যালোরি: ১১০

ভিটামিন সি: আরডিআইয়ের ৬৭%

প্রোটিন: ২ গ্রাম

কার্বস: ২৬ গ্রাম

পটাশিয়াম: আরডিআইয়ের ১০%।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে
কমলার রস ভিটামিন সি-এ ভরটপুর, যা স্বাস্থ্যকর ইমিউন সিস্টেমের কার্যকারিতার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি ঠান্ডা, ফ্লু এবং অন্যান্য প্রদাহজনিত রোগ থেকে রক্ষা করে।

উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস করে
কমলার রসে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হেস্পেরিডিন শরীরকে বিভিন্ন ক্যান্সার এবং রোগ থেকে রক্ষা করে। তবে এই পানিতে দ্রবণীয় উদ্ভিদ যৌগের আরেকটি কাজ হলো ছোট ছোট রক্তনালী সক্রিয় রাখা।

কিডনিতে পাথর প্রতিরোধ করে
কমলার রসে সাইট্রিক অ্যাসিড এবং সাইট্রেটের উচ্চ ঘনত্ব রয়েছে, যা কিডনিতে পাথরের ঝুঁকি হ্রাস করতে সহায়তা করে বলে মনে করা হয়। নিয়মিত কমলার রস খেলে কিডনির পাথর গঠনের ঝুঁকি হ্রাস করা যায়।

ওজন হ্রাসে সহায়তা
নিয়মিত কমলার রস খাওয়া অতিরিক্ত ওজন ঝেরে ফেলতে সহায়তা করে। কারণ এতে ক্যালোরি অবিশ্বাস্যভাবে কম এবং শূন্য ফ্যাট রয়েছে।

প্রদাহ হ্রাস করে
কমলার রস প্রদাহ হ্রাস করতে সহায়তা করতে পারে। এর এন্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যের কারণে দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি হ্রাস হয়। কমলার রস খেলে মেটাবলিক সিনড্রোম থেকে রক্ষা পেতে পারেন। এই মেটাবলিক সিনড্রোম টাইপ ২ ডায়াবেটিসের মতো জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।

ত্বকের ক্ষতি প্রতিরোধ করে
কমলার রস অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টে পরিপূর্ণ ত্বককে ফ্রি র‌্যাডিক্যালের ক্ষতি থেকে রক্ষা করে। কমলা রসে ভিটামিন সি কোলাজেন গঠনে ভূমিকা রাখে যা আমাদের ত্বককে তারুণ্যের চেহারা দেয়।

সূত্রঃ জাগোনিউজ