অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ দেশের সব ধরনের ক্রিকেট

ক্রীড়া ডেস্কঃ
বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়েছে দেশের সব ধরনের ক্রিকেট। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের স্বীকৃত কোনো টুর্নামেন্ট বা খেলা মাঠে গড়াবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ খবর জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

ফলে স্থগিত হলো মাত্র শুরু হওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)। বিসিবি সভাপতির ভাষ্য অনুযায়ী, চলতি মাসে তো নয়ই, এপ্রিলের ১৫ তারিখের আগে আর প্রিমিয়ার লিগ মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা নেই।

সংবাদ সম্মেলনে পাপন বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন, করোনাভাইরাসের কারণে সারা পৃথিবীতেই যা হচ্ছে…বাংলাদেশেও এটা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। যে কারণে সব জায়গায়ই খেলাধুলা বন্ধ। আমাদের এখানেও বন্ধ হয়ে গেছে।’

গত ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছে এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। প্রথম রাউন্ড খেলা হওয়ার পর ১৮ ও ১৯ তারিখের দ্বিতীয় রাউন্ড স্থগিত করেছিল বিসিবি। এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে সব দিক বিবেচনা করার জন্য দুদিন সময় নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘বিশেষ করে প্রিমিয়ার লিগ প্রথম রাউন্ডের পরই আমরা বন্ধ করে দিয়েছিলাম। তখন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে, দুটা দিন অপেক্ষা করি, অবস্থা ও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত নেই। তো (দ্বিতীয় রাউন্ড স্থগিত করা) ওটা একটা তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত ছিল। এখন আমরা সবদিক বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ করে দেয়ার কথা জানিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমরা দেখলাম যে, এখন অনেক কিছুই বদলাচ্ছে, খেলোয়াড়দের ইচ্ছাটাও আগের মতো নেই। এছাড়া কিছু ভিন্নমতও আসছে। তো সবদিক বিবেচনা করে আমরা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি যে, দেশের সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ, আপাতত স্থগিত। পরবর্তী ঘোষণা দেয়ার আগ পর্যন্ত, পরিস্থিতি উন্নতির আগে আমরা কিছু বলতে পারছি না। পরিস্থিতি বদলালে আমরা খেলা শুরুর নতুন সূচি ঘোষণা করব।’

তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় না ১৫ এপ্রিলের আগে ডিপিএল শুরুর সম্ভাবনা আছে। বরং এটা বাড়তেও পারে। শুধু খেলোয়াড়দের না, প্রত্যেক মানুষের সতর্ক হওয়া উচিত এ করোনাভাইরাস নিয়ে। কাজেই এখন ক্রিকেট খেলার পরিস্থিতি নয়। যদিও অন্য খেলার চেয়ে বডি কন্ট্যাক কম ক্রিকেটে। যত বেশি দূরে থাকা দরকার, তার চেয়ে দূরে থাকে ফিল্ডাররা। তবু আমরা মনে করি এটা খেলার সময় নয়।’

সূত্র: জাগোনিউজ