মুজিববর্ষকে যেভাবে স্বাগত জানাবে ক্রীড়াঙ্গন

অনলাইন ডেস্কঃ
ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা স্পর্শ করলেই শেষ হবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ-এর ক্ষণগণনা। শুরু হবে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালির জন্মশতবার্ষিকীর বছরব্যাপী অনুষ্ঠান। যদিও করোনাভাইরাসের কারণে জাতীয়ভাবেই বাদ দেয়া হয়েছে অনেক কর্মসূচি। ক্রীড়াঙ্গনেও তাই। মঙ্গলবার থেকে তো ১৪ দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে ঘরোয়া সব ধরনের খেলাধুলা।

তারপরও অন্য আঙ্গিকে ক্রীড়াঙ্গন স্বাগত জানাবে স্বাধীনতার স্থপতির জন্মশতবার্ষিকীকে। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ সকাল ৮টা থেকে শুরু করবে তাদের কর্মসূচি। এর মধ্যে প্রথমেই বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের এক নম্বর ফটকের পাশে স্থাপিত জাতির পিতার ম্যুরালে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হবে। এরপর সন্ধ্যায় থাকবে স্টেডিয়ামে আলোকসজ্জা ও আতশবাজির কর্মসূচি।

জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব মো. মাসুদ করিম রাতে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘সন্ধ্যা ৭ টায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে কেট কাটার মাধ্যমে পালন করা হবে জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকীর প্রথম দিন। কেক কাটবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। জাতির পিতার নামের বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আলোকসজ্জা করা হবে। স্বল্প পরিসরে থাকবে আতশবাজি।’

করোনার কারণে মুজিববর্ষের কর্মসূচি কাটছাঁট না হলে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরো স্টেডিয়াম চত্বরের সব ভেন্যু আলোয় উদ্ভাসিত থাকতো। এখন শুধু জাতির পিতার নামের স্টেডিয়ামকে আলোকিত করা হবে। ইতিমধ্যে আলোকসজ্জার কাজ শুরু হয়েছে। মতিঝিল-গুলিস্তান এলাকার অন্যান্য বিশাল অট্টালিকার মতো রঙিন আলো জ্বলছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের চারিদিকে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ