করোনা বিষয়ে ৮ বিভাগে ৮ উপসচিবকে দায়িত্ব প্রদান

অনলাইন ডেস্কঃ
সম্প্রতি মহামারি আকারে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা বিষয়ে সমন্বয় সাধনের জন্য দেশের আট বিভাগে উপসচিব ও সিনিয়র সহকারী সচিব পদমর্যাদার আট কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের  স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের উপসচিব খন্দকার জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানা গেছে।

চিঠিতে বলা হয়, ঢাকা বিভাগের সকল জেলায় উপসচিব (প্রশাসন-১) খন্দকার জাকির হোসেন; চট্টগ্রাম বিভাগে উপসচিব (ক্রয় ও সংগ্রহ-১) হাছান মাহমুদ, সিলেট বিভাগে উপসচিব (সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-২) বেগম রোকেয়া খাতুন; রাজশাহী বিভাগে উপসচিব (বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-১) বেগম সুলতানা রাজিয়া; রংপুর বিভাগে উপসচিব (জিএনএসপিএইচআর শাখা) মো. ছরোয়ার হোসেন; খুলনা বিভাগে সিনিয়র সহকারী সচিব (প্রশাসন-২) মো. শাহাদাত হোসেন কবির; ময়মনসিংহ বিভাগে সিনিয়র সহকারী সচিব (বেসরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-১) বেগম উম্মে হাবিবা এবং বরিশাল বিভাগে উপসচিব (নার্সিং সেবা-২) তানভীর আহমেদ দায়িত্ব পালন করবেন।

এতে আরও বলা হয়, দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা সেবা বিষয়ে সমন্বয়ের জন্য সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনের কাছ থেকে প্রতিদিন গৃহীত কার্যক্রমের তথ্য সংগ্রহ ও মনিটরিং করবেন এবং এ-সংক্রান্ত সকল বিষয় সমন্বয় করবেন।

গত রোববার বিদেশফেরত তিন জনের শরীরে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)।

তবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজনের মধ্যে যে দুজন সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তাদের যেকোনো দিন ছেড়ে দেয়া হবে।

এর আগে বুধবার (১১ মার্চ) সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনাও বলেছিলেন, দুজন সুস্থ হয়ে উঠছেন।

মন্ত্রী বলেন, সরকার সতর্ক ও সজাগ রয়েছে। করোনা মোকাবিলা করতে সব ধরনের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি রয়েছে তাদের।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছেই। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বুধবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্বে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২৬ হাজার ৩শ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং ৪ হাজার ৬৩৩ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ৬৮ হাজার ২৮৫ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। শুধুমাত্র চীনের মূল ভূখণ্ডেই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৯৬ এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ১৬৯ জনের।

চীনের পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১২ হাজার ৪৬২ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৮২৭ জনের।

সূত্রঃ জাগোনিউজ