বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে প্রাথমিকের ৮ কর্মসূচি

অনলাইন ডেস্কঃ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনে দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আট কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নাজমা শেখ সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মুজিববর্ষ উপলক্ষে আগামী ১৭ মার্চ জাতির পিতার জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপনের জন্য দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিম্নবর্ণিত কর্মসূচি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

মুজিববর্ষে কর্মসূচি হিসেবে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে সমাবেশ; জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন; প্রধানমন্ত্রীর চিঠি পাঠ; কেক কাটা; চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা; আলোচনা সভা; ছোটদের বঙ্গবন্ধু বিষয়ক আলোচনা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে বলা হয়েছে।

উপরোক্ত কর্মসূচিসমূহ দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যথাযথভাবে পালনের জন্য মাঠ পর্যায়ে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা এবং এ বিষয়ে গৃহীত কার্যক্রমে প্রতিবেদন জেলা ভিত্তিতে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়েছে।

তবে করোনাভাইরাসের এ সময়ে এমন অনুষ্ঠান আয়োজনের যৌক্তিকতা সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বলেন, ‘যেহেতু জনসমাগম এড়িয়ে চলতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে, তাই আমরা ঘরোয়াভাবে এ সব প্রোগাম করা যায় কি না সে বিষয়ে চিন্তা করছি। যেহেতু বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীটাও উদযাপন করা জরুরি। কারণ এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মাঝে বঙ্গবন্ধু নিয়ে জানাশোনা এবং আরও আগ্রহ জন্মাবে।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজন রোগী শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন নারী ও দুজন পুরুষ। এর মধ্যে দুজন ইতালিফেরত। এদের বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সবাইকে জনসমাগম এড়িয়ে চলার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সূত্রঃ জাগোনিউজ