রামু সেনানিবাসের এ্যালিফেন্ট গেইটে বাংলাদেশ ইতিহাসের চিত্রকর্মে টেরাকোটা দেয়াল উদ্বোধন

খালেদ শহীদ, রামুঃ
রামু সেনানিবাসে বাংলাদেশ ইতিহাসের ঐতিহাসিক ঘটনাপঞ্জী নিয়ে টেরাকোটা দেয়াল উদ্বোধন করা হয়েছে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের রামু সেনানিবাসের এ্যালিফেন্ট গেইট সংলগ্ন (রামু-মরিচ্যা রোডের পূর্ব পার্শ্বে) বাংলাদেশের ইতিহাসের চিত্রকর্ম সম্বলিত ওই টেরাকোটা দেয়াল উদ্বোধন করেন, ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও এরিয়া ‌‌কমান্ডার কক্সবাজার এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ মাঈন উল্লাহ চৌধুরী, ওএসপি, এডব্লিউসি, পিএসসি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ চেয়ারম্যান লে. কর্নেল ফোরকান আহমদ, এলডিএমসি, পিএসসি (অবঃ) এবং রামু সেনানিবাসের উর্দ্ধতন সামরিক ও অসামরিক কর্মকর্তা, কর্মচারী, রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ এবং রামু ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা। ১৮ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ইতিহাসের এ চিত্রকর্ম উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও এরিয়া ‌‌কমান্ডার কক্সবাজার এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ মাঈন উল্লাহ চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং বাংলাদেশের ইতিহাসের চিত্রকর্ম সম্বলিত দৃষ্টিনন্দন টেরাকোটা দেয়াল নির্মাণে বাংলাদেশের ইতিহাস জানতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, ইতিহাসের ঐতিহাসিক চিত্র সম্বলিত টেরাকোটা’র ভাস্কর্যের মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্ম ইতিবৃত্ত ১৯৪৭ সালের দেশ বিভাজন, ১৯৬২ সালের ছাত্র আন্দোলন, ১৯৫২-এর ভাষা আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ৬ দফা দাবী, ১৯৬৯ এর গণ অভ্যুত্থান, ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণ ও মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং সর্বোপরী বর্তমানে উন্নয়নের ধারাবাহিকার একটি প্রমান ও বাস্তবচিত্র সুনিপুণভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। উক্ত দৃষ্টিনন্দন স্থাপনাটি অত্র এলাকা ও রামু সেনানিবাসের তথা সমগ্র কক্সবাজার অঞ্চলকে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সম্পর্কে জানতে উদ্বুদ্ধ করবে।