ইসলাম নিয়ে অশান্তি সৃষ্টির কোনো সুযোগ নেই

অনলাইন ডেস্কঃ
পবিত্র কোরআন থেকে মনোমুগ্ধকর তেলাওয়াত, হামদ ও নাত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বুধবার শুরু হয়েছে অরাজনৈতিক সংগঠন দাওয়াতে ইসলামী তিন দিনের সুন্নাতে ভরা ইজতিমা।

রাজধানীর বিমানবন্দর সংলগ্ন সিভিল এভিয়েশন ময়দানে ইজতিমার প্রথম দিনেই নবীপ্রেমী মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। দেশের দূর-দূরান্ত ছাড়িয়ে বিদেশি মুসল্লিরাও যোগ দিয়েছেন এই ইজতিমায়। সকাল থেকে চলছে প্রথম দিনের বিষয়ভিত্তিক বয়ান, মিলাদ ও দোয়া মোনাজাত। সিভিল এভিয়েশনের মাঠের বিশাল প্যান্ডেলে মুসল্লিরা একসঙ্গে জামাতে নামাজ আদায় করছেন।

প্রথম দিনে বিষয়ভিত্তিক বয়ানে অংশ নেন- ইসলামে উত্তম ব্যবহার ও এর বরকতসমূহ নিয়ে দাওয়াতে ইসলামীর মুবাল্লিগ জাকির আত্তারী, ধৈর্যশীলতার ফজিলত নিয়ে মুবাল্লিগ আলফেসানী আত্তারী, আউলিয়া কেরামের মাহাত্ম্য ও মর্যাদা নিয়ে কোরআন-হাদিসের দলিলভিত্তিক আলোচনা করেন মুবাল্লিগ মুহাম্মদ মসউদ আত্তারী, গানবাজনার পরিণতি নিয়ে বয়ান করেন মুফতি জহিরুল ইসলাম মুজাদ্দেদী। এছাড়া আদব-কায়দা, সালাম ও মুসাফাহার সুন্নাতসমূহ, আজান, অজু, নামাজের হুকুম-আহকাম শেখানো হয় ইজতিমায়।

বিষয়ভিত্তিক বয়ানে বক্তারা বলেন, ঘুষ, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদমুক্ত সুন্দর সমাজ গঠনে মহানবীর (সা.) উত্তম চরিত্র অনুসরণের বিকল্প নেই। ইসলাম শান্তি ও মানবতার ধর্ম, ইসলাম নিয়ে অশান্তি সৃষ্টির কোনো সুযোগ নেই। আজীবন তার সুন্নাত হুবহু অনুসরণ করার মধ্যদিয়ে মানবিক মূল্যবোধ ও উত্তম চরিত্র গঠন সম্ভব। আর তা একে একে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারলে সমাজে শান্তি ফিরে আসবে।

পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন দাওয়াতের ইসলামীর ক্বারি হাফেজ মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম আত্তারী। তারপর মনোমুগ্ধকর নাতে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পরিবেশন করেন মোহাম্মদ শোয়েব আত্তারী ও আলী হামজা মাদানী।

দাওয়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় সভাপতি মোহাম্মদ কামাল আত্তারী ও জিম্মাদার মোহাম্মাদ জহিরুল ইসলাম মুজাদ্দেদী জানান, সরকারের সার্বিক সহযোগিতায় সুন্দরভাবে তিন দিনের ইজতেমা চলছে। দেশ-বিদেশে লাখো আশেকে রাসুল (সা.) ইজতিমায় অংশ নিয়েছেন।

তারা বলেন, বিষয়ভিত্তিক আলোচনার মাধ্যমে মানুষের মধ্যে নৈতিক মূল্যবোধ জাগিয়ে তোলা হচ্ছে। এই ইজতেমা ইসলামের নামে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনেও চলবে কোরআন-হাদিসের ওপর বিষয়ভিত্তিক আলোচনা। ইসলামের আলোকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ হারাম এ নিয়ে আলোচনা হবে। জিকির আসকার ও বিশেষ আমলসমূহের পাশাপাশি চলবে মিলাদ, দোয়া-মোনাজাত।

সূত্রঃ জাগোনিউজ