বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বাদল বড়ুয়া পরলোকে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
কক্সবাজার জেলা শহরের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, সমাজসেবী ও সংগঠক বাদল চন্দ্র বড়ুয়া (৮২) পরলোকগমন করেছেন। তিনি গতকাল মঙ্গলবার বেলা ২টা ৪৫ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই কন্যা, দুইপুত্র, নাতি-নাতিনী, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুসুহ্নদ, শুভাকাংখী ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তাঁর জন্মগ্রাম চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার মছদিয়া গ্রামে হলেও সরকারি চাকরীসহ অন্যান্য কর্মযজ্ঞের সুবাদে তিনি জেলা শহরের বৈদ্যেরঘোনায় স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। কক্সবাজার গণপূর্ত বিভাগে চাকরী জীবন শেষ করে তিনি নিজেকে বহুমাত্রিক কর্মযজ্ঞে নিয়োজিত করেন। তিনি ছিলেন উন্নত রুচিশীল সংস্কৃতিবান আধুনিক মানুষ। পশ্চিম বৈদ্যেরঘোনা সমাজ কমিটির সভাপতি, পাহাড়িফুল খেলাঘর আসরের সভাপতি, হেমন্তিকা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর অন্যতম পৃষ্ঠপোষক ও জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি, কক্সবাজার হোটেল-মোটেল গেষ্ট হাউস মালিক সমিতির উপদেষ্টা, বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের বিভিন্ন সংগঠনের সংগঠকসহ অনেক সংস্থা ও সংগঠনে তিনি দায়িত্ব পালন করেন তিনি। তার প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা চারটি। বিভিন্ন সংবাদপত্রে বিভিন্ন বিষয়ে কলাম ও লিখতেন তিনি।

তিনি অনেক সময় বিদেশও সফর করেছেন।

আজ বুধবার সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তাঁর মরদেহ বৈদ্যেরঘোনাস্থ নিজ বাসভবনে রাখা হবে। এরপর তাঁর শেষ ইচ্ছানুযায়ী মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে জন্মগ্রাম লোহাগাড়ায়। সেখানে পারিবারিক শশ্মানে তার শেষ কৃত্যানুষ্ঠান হবে।