রামু উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক বিদ্যালয় উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

আল মাহমুদ ভূট্টো,রামুঃ
রামু উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি পেয়েছে জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৯ এ উপজেলা পর্যায়ে যোগ্যতা বিবেচনায় শ্রেষ্ঠ এ প্রাথমিক বিদ্যালয়কে নির্বাচিত করা হয়েছে। সেরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যাপারে রামু উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গৌর চন্দ্র দে বলেন, উপস্থিতির হার, ফলাফল সকল দিক দিয়েই এ বিদ্যালয়ের অবস্থান ভাল। পরিপাটি পরিবেশ, সুশৃঙ্খল পরিচালন, শিক্ষার মান, শিক্ষার্থী উপস্থিতির হার, খেলাধুলা সহপাঠ কার্যক্রমসহ সামগ্রিক কর্মকান্ড বিবেচনায় জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক বিদ্যালয় ঘোষনা করা হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ ফখরুদ্দিন টিটু জানান, আমরা আমাদের শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সুন্দর পরিবেশে পাঠদানের পাশাপাশি নানা কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকি। বিদ্যালয়ে প্রত্যহ শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে এবং ঝড়ে পড়া রোধে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের প্রতি বিশেষ নজর, অভিভাবক ও মা সমাবেশ, হোম ভিজিট করে থাকি। ফলে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর পিইসি পরীক্ষায় শতভাগ পাশসহ বৃত্তি নিয়ে আসছে।

এছাড়া গত ২০১৬ সালে বিদ্যালয়টি নিম্ন মাধ্যমিক স্থরে রূপান্তর হয় এবং ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত জে এস সি পরীক্ষায় প্রথম অংশগ্রহণ করে ৫ জন ৩ জন বৃত্তিসহ ৫ জন জিপিএ-৫ নিয়ে শতভাগ পাশ করে। এছাড়া স্কাউট, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সুনাম বয়ে আনছে। তিনি বলেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মন্ডলী, তরুণ সমাজসেবক শরিফুল আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি,অভিভাবক, শিক্ষার্থীদের আন্তরিকতায় উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন সম্ভব হয়েছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি তরুণ সমাজসেবক শরিফুল আলম চৌধুরী বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবক, ম্যানেজিং কমিটি, পিটিএ কমিটিসহ সকলের সহযোগিতায় বিদ্যালয়টি উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। এ অর্জনে তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা থেকে শুরু করে অবহেলিত এলাকায় শিক্ষার মানোন্নয়নে যুগে যুগে যারা কাজ করে গেছেন তাঁদের অবদানকে স্মরণ করে উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এ অর্জনকে ধরে রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।