রামুতে প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ দলের কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ, ক্যাপটেন কক্সের বাংলো ও বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শন

সোয়েব সাঈদ, রামুঃ
রম্যভূমি রামু উপজেলার বিভিন্ন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও স্থাপনা পরিদর্শন করেছেন প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের প্রাক জরিপ দল। প্রতিনিধি দলে নেতৃত্ব দেন, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমান।
রবিবার (২৭ অক্টোবর) সকালে কক্সবাজারে পৌঁছেন দলটি। ওইদিনই তাঁরা রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা এলাকায় ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিক এবং বিকালে ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের অফিসেরচর এলাকার ঐতিহাসিক লামার পাড়া বৌদ্ধ বিহার ও ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের ডাক বাংলো পরিদর্শন করেন।

প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো. আতাউর রহমান জানান, কক্সবাজার জেলার সদর, রামু, উখিয়া ও মহেশখালী উপজেলায় প্রতœতত্ত¡ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ পরিচালনা করা হবে। আগামী নভেম্বর মাসজুড়ে চলবে এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ।

তিনি আরো জানান, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. হান্নান মিয়ার নির্দেশান অনুযায়ী এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রত্নতাত্ত্বিক এ জরিপ ও অনুসন্ধান কাজের প্রাক-পর্যবেক্ষণ কাজের অংশ হিসেবে তারা কক্সবাজার এসেছেন। প্রতিনিধি দলে ছিলেন, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক ড. মো.আতাউর রহমান ছাড়াও ফিল্ড অফিসার মো.শাহীন আলম, সার্ভেয়ার চাইথুয়াই মারমা ও পটারী রের্কডার ওমর ফারুক।

রবিবার রামুর ঐতিহাসিক কাঁনা রাজার সুড়ঙ্গ বা আঁধার মানিক এবং ঐতিহাসিক লামার পাড়া বৌদ্ধ বিহার ও ক্যাপ্টেন হিরাম কক্সের ডাক বাংলো পরিদর্শনকালে বিশিষ্ট চিত্র শিল্পী তানভীর সরওয়ার রানা, বিশিষ্ট লেখক কবি সুলতান আহমদ মনিরী, ছড়াকার কামাল হোসেন ও সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ উপস্থিত ছিলেন।

বিকালে (রবিবার) প্রতিনিধি দলটি কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন এবয় রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমার সাথে সাক্ষাত করেন। সাক্ষাতকালে প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ বিষয়ে আলোচনা করা হয়। জেলা প্রশাসক ও ইউএনও প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ ও অনুসন্ধান কাজে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।