‘৫ মাসে ধর্ষণের শিকার ২৩৩ শিশু’

অনলাইন ডেস্কঃ
গত জানুয়ারি থেকে ২৫ মে পর্যন্ত সারাদেশে ২৩৩ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ সময়ে ৩২ জন শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে দুই ছেলে শিশুসহ ৩৫ জন। সাত শিশুকে ধর্ষণের পর ও এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার পর খুন করা হয়েছে। এ ছাড়াও দুই শিশু ধর্ষণের শিকার হয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা মোহাম্মদ আকরম খাঁ হলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুল ধরে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

এতে বলা হয়, গত বছর সারাদেশে মোট ৩৫৬ শিশু ধর্ষণের শিকার হয় এবং মারা যায় ২২ জন। ৫৩ শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়।

বক্তারা বলেন, শিশু ধর্ষণের ঘটনা দিন দিন বাড়ছে। শিশুরা কোথাও নিরাপদ নয়। ফলে শিশু ধর্ষণ-যৌন হয়রানি বন্ধে সরকার এবং তার বিভিন্ন আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের কাছে কয়েকটি দাবি জানিয়েছে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে- যত দ্রুত সম্ভব অপরাধীদের গ্রেফতার ও বিচার সম্পন্ন করা, শিশুর প্রতি ধর্ষণ ও সহিংসতা বন্ধে প্রণীত আইনগুলো বাস্তবায়নের জন্য এ মুহূর্তেই বাস্তবসম্মত উদ্যোগ নেওয়া, বিভিন্ন পর্নো সাইট ও বিদেশি চ্যানেল যেখানে সহিংসতার ঘটনা দেখায় তা বন্ধ করা, তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন সচেতনতামূলক ডকুমেন্টারি গ্রামপর্যায়ে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা, বিআরটিএর মাধ্যমে গাড়িচালকদের ধর্ষণ ও যৌন হয়রানি বিষয়ে সচেতন করা।

সংবাদ সম্মেলনে আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক শিফা হাফিজ, এসিড সারভাইভরস ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সেলিনা হোসেন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্রঃ সমকাল