উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মজার খেলা ‘৬০ মিনিটের চ্যালেঞ্জ’

ক্রীড়া ডেস্কঃ
ঠিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মত নয়, তবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। আয়োজক ইংল্যান্ড এর নাম দিয়েছে ওপেনিং পার্টি। যে কারণে ক্রিকেটের কোনো ভেন্যুতে নয়, মধ্য লন্ডনের দ্য মলে। বাকিংহাম প্যালেসকে পেছনে রেখে আয়োজন করা হয়েছে এই অনুষ্ঠানের।

নামে যেমন বৈচিত্র্য, তেমনি অনুষ্ঠানের নানা আয়োজনেও বৈচিত্র্য আনার চেষ্টা আয়োজকদের। তারই অন্যতম হলো ৬০ সেকেন্ডের চ্যালেঞ্জ। যেখানে ব্যাট করতে দেখা গেছে প্রতিটি দলের সাবেক একজন ক্রিকেটার এবং যে কোনো একজন সেলিব্রেটিকে।

বাংলাদেশের হয়ে এই চ্যালেঞ্জে অংশ নেন অভিনেত্রী জয়া আহসান, ক্রিকেটার আবদুর রাজ্জাক। ভারতের হয়ে অংশ নেন অনিল কুম্বলে এবং বলিউড স্টার ফারহান আখতার। পাকিস্তানের হয়ে অংশ নেন ক্রিকেটার আজহার আলি এবং নোবেল জয়ী মালালা ইউসুফজাই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ব্যাট ধরেন কিংবদন্তি ভিভ রিচার্ডস এবং স্প্রিন্টার ইয়োহান ব্লেক।

অনুষ্ঠান শুরুর পর বাকিংহাম প্যালেসে ঠিক পাশেই সুবিশাল লন্ডন মলে একে একে হাজির হন বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দশটি দলের প্রতিনিধিরা। সে তালিকায় ক্রিকেটারদের সঙ্গে ছিলেন বিনোদুনিয়ার এসব তারকারা। এমন ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হতে লন্ডন মলে ভিড় জমিয়েছিলেন প্রায় চার হাজার ক্রিকেটপ্রেমী। নাচে-গানে-খেলায় রীতিমতো জমজমাট হয়ে ওঠে লন্ডনের পরিবেশ।

বৃহস্পতিবার ১২তম বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা। তার আগে কোন দল ঠিক কতটা শক্তিশালী, তার আভাস দিয়ে রাখলেন সেসব দলের প্রতিনিধিরাই। কীভাবে? একটি মজার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল।

প্রতিটি দলের দুই প্রতিনিধি মিলে ৬০ সেকেন্ডে কত রান করতে পারেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ভিভ রিচার্ডস এবং স্প্রিন্টার ব্লেক করেন ৪৭ রান।

তবে এক্ষেত্রে ভারতের প্রতিনিধি অনিল কুম্বলে ও ফারহান আখতার হতাশই করেন। নির্ধারিত সময়ে তাদের সংগ্রহ মাত্র ১৯ রান। আর সবাইকে পিছনে ফেলে বাজিমাত করল আয়োজকরাই। ৭৪ রান ঝুলিতে ভরে ইংল্যান্ড। দলের প্রতিনিধি কেভিন পিটারসেনের আশা, এভাবেই আগামী সপ্তাহগুলিতে সাহসের সঙ্গে এগিয়ে যাবে ইংল্যান্ড।

অস্ট্রেলিয়ার ব্রেট লিরা করেন ৬৯ রান। মাত্র ৫ রানে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ৬০ সেকেন্ডর চ্যালেঞ্জ জিতে নিলো ইংল্যান্ড। বাংলাদেশের হয়ে চ্যালেঞ্জে অংশ নেন সাবেক ক্রিকেটার আবদুর রাজ্জাক এবং অভিনেত্রী জয়া আহসান। তারা দু’জন মিলে করেন মাত্র ২২ রান।

সাবেকদের পাশাপাশি উপস্থিত হয়েছিলেন দশ দলের এবারের অধিনায়করা। শেষ পর্বে ট্রফি হাতে হাজির হন গতবারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক।

সূত্রঃ জাগোনিউজ