বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি আরুক মুন্সিকে ডাকলেন এমপি ফারুক খান

অনলাইন ডেস্কঃ
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গোপালগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বঙ্গবন্ধুর জীবন্ত প্রতিচ্ছবি আরুক মুন্সি।

অবিকল দেখতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো আরুক মুন্সির বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার কামারোল গ্রামে। ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন তিনি। বিভিন্ন মাধ্যমে সংবাদ দেখে আরুক মুন্সির সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা জাগে এমপি ফারুক খানের।

পরে আরুক মুন্সিকে দেখা করতে ডাকেন এমপি ফারুক খান। রোববার বেলা ২টায় ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় ফারুক খানের অফিসে যান আরুক মুন্সি। সেখানে তাদের মধ্যে কুশলবিনিময় হয়, বিভিন্ন বিষয়ে কথাবার্তা হয়।

জানা যায়, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোক্তার হোসেনের মাধ্যমে আরুক মুন্সির সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খান। পরে আরুক মুন্সিকে ফারুক খানের সঙ্গে দেখা করার জন্য বলেন মোক্তার হোসেন।

এদিকে এমপি ফারুক খানের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও কুশলবিনিময়ে মুগ্ধ হয়েছেন আরুক মুন্সি। সেই সঙ্গে আরুক মুন্সিকে কিছু জিনিসপত্র উপহার দিয়েছেন এমপি ফারুক খান।

এমপির সঙ্গে দেখার করার প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আরুক মুন্সি জাগো নিউজকে বলেন, `আমি কখনো ভাবতে পারিনি আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য এমপি ডাকবেন। সাক্ষাতে আমার সঙ্গে এতো ভালো ব্যবহার করবেন আশাও করিনি। অফিসে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিত অনেক মানুষের মধ্যে আমাকে শুভেচ্ছা জানান এমপি। আমার ব্যক্তিগত ও পরিবারের খোঁজখবর নেন। দেশের রাজনৈতিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেন। আমাকে জড়িয়ে ধরে নিজের মোবাইল দিয়ে আমার সঙ্গে সেলফি তুলেছেন এমপি ফারুক খান।’

আরুক মুন্সি আরও বলেন, সম্প্রতি হজ ও ওমরাহ পালন শেষে সেখান থেকে আনা খুব সুন্দর জায়নামাজ, তাসবিহ, আতর, খেজুর ও কার্ড হোল্ডার আমাকে উপহার দেন। পরিবার-পরিজন নিয়ে ঈদ করার জন্য আমাকে কিছু নগদ টাকা দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি নিজের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর আমাকে দিয়েছেন।। তিনি বলেছেন, যখন খুশি ফোন দিতে। তিনি আমাকে আধা ঘণ্টার মতো সময় দিয়েছেন।

আরুক মুন্সি বলেন, নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সত্যিই আমি অভিভূত। আমার প্রিয় নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আমাকে একবার সাক্ষাতের সুযোগ করে দেয়ার কথা জানিয়েছি এমপি ফারুক খানকে। তিনি আমাকে আশ্বস্ত করেছেন। এছাড়া আমার আর কিছু চাওয়া-পাওয়ার নেই। আমি খুশি। অনেক অনেক খুশি হয়েছি আমি।

কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোক্তার হোসেন বলেন, ২২ মে কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের ইফতার অনুষ্ঠানে আমাদের সংসদ সদস্য ফারুক খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ওই সময় তিনি আমাকে আরুক মুন্সি সম্পর্কে জানতে চান। একপর্যায় তিনি আরুক মুন্সিকে তার সঙ্গে দেখা করার জন্য আমাকে বলেন। আমি আরুক মুন্সিকে খবরটি পৌঁছে দিলে রোববার তিনি গিয়ে ফারুক খানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

এদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আরুক মুন্সিকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ইলিয়াস হক স্বাক্ষরিত প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, বিভিন্ন গণমাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি বলে আরুক মুন্সিকে নিয়ে যেসব সংবাদ প্রকাশ করা হচ্ছে এতে বঙ্গবন্ধুকে ছোট করা হচ্ছে। তবে কীভাবে বঙ্গবন্ধুকে ছোট করা হচ্ছে তা সুনির্দিষ্টভাবে জানতে চাইলে স্পষ্ট কোনো বক্তব্য দিতে পারেননি স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা।

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে কাউকে মিলিয়ে কোনো প্রতিবেদন করা আসলে ভালো দেখায় না, তাই আমরা এ ধরনের প্রতিবেদন না করার অনুরোধ করেছি।

সূত্রঃ জাগোনিউজ