রাহুলের পদত্যাগের বিষয়ে সম্মতি দিলেন সোনিয়া ও প্রিয়াঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বড় ব্যবধানে পরাজয়ের পর গত শনিবার দলীয় বৈঠকে পদত্যাগের ইচ্ছা পোষণ করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তবে সেদিন দলের প্রথম সারির নেতারা রাহুলের পদত্যাগের প্রস্তাব নাকোচ করে দেন। কিন্তু নিজের সিদ্ধান্তে অনড় রাহুল গান্ধীর পদত্যাগের ইচ্ছায় এবার সস্মতি দিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও রাহুলের মা সোনিয়া গান্ধী এবং কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক ও রাহুলের বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

সোমবার দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জহরলাল নেহরুর মৃত্যু দিবসে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়েও পদত্যাগের ইচ্ছায় অনড় থেকে টুইট করেন রাহুল গান্ধী। সেই সঙ্গে দলের দুই শীর্ষ নেতাকে নতুন সভাপতি খোঁজার জন্যও বলেন রাহুল। খবর এনডিটিভি’র

গত ২৩ মে লোকসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণায় বিরাট ব্যবধানে জয় পায় নরেন্দ্র মোদির বিজেপি। এরপর শনিবার কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে নিজের দায় স্বীকার করে পদত্যাগের ইচ্ছা পোষণ করেন রাহুল। কিন্তু দলীয় নেতারা এবং সোনয়িা ও প্রিয়াঙ্কা তার ইস্তফার সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করে রাহুলকেই সভাপতি পদে কাজ চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। সে দিনের মতো বিষয়টি মিটে গেলেও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন রাহুল। শেষ পর্যন্ত সোনিয়া-প্রিয়ঙ্কা তাকে বোঝাতে ব্যর্থ হয়ে পদত্যাগের সিদ্ধান্তে সম্মতি জানান।

রাহুলের ঘনিষ্ঠ মহলের একাধিক সূত্র জানায়, কংগ্রেস সভাপতির পদ ছাড়ার ব্যাপারে আর কোনো দ্বিমত নেই। শুধু নতুন সভাপতি নির্বাচন করা পর্যন্ত দায়িত্বভার সামলাবেন তিনি। তবে এই সময়ের মধ্যে দলের সাংগঠনিক কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি কোনো ভূমিকা রাখবেন না বলেই জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে হারের পরে ২০১৯ সালে রাহুলকে সামনে রেখে মোদির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামে কংগ্রেস। কিন্তু মোদির সামনে টিকতেই পারেননি রাহুল গান্ধী। আগেরবারের তুলনায় আরও ২৩টি আসন বাড়িয়ে সর্বমোট ৩০৩টি আসন নিয়ে প্রত্যাবর্তন করে বিজেপি। আর মাত্র ৫২টি আসনেই থেমে গেছে কংগ্রেস।

সূত্রঃ সমকাল