মহাজোট সরকার এখন একক আওয়ামী লীগের: বাংলাদেশ জাসদ

অনলাইন ডেস্কঃ
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ১৪ দলীয় জোট সরকার শুধু আওয়ামী লীগের সরকারে পরিণত হয়েছে বলে মনে করছে বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- বাংলাদেশ জাসদ। শরীফ নুরুল আম্বিয়া নেতৃত্বাধীন দলটি বলছে, একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর দেশে বিচলিত হওয়ার মতো এক ‘রাজনৈতিক শূন্যতা’ সৃষ্টি হয়েছে। গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ব্যবস্থার জন্য এ ধরনের রাজনৈতিক শূন্যতা বিপদ সংকেত। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে সব গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল শক্তিকে বিষণ্ণতা ঝেড়ে ফেলে সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে আওয়ামী লীগের জোট শরিক দলটি।

শুক্রবার বাংলাদেশ জাসদের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়। এতে বলা হয়, বাংলাদেশ জাসদের দুই দিনব্যাপী স্থায়ী কমিটির সভায় ছয় দফা প্রস্তাব গৃহীত হয়। শরীফ নুরুল আম্বিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন দলের কার্যকরী সভাপতি মইনউদ্দিন খান বাদল, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, স্থায়ী কমিটির সদস্য ডা. মুশতাক হোসেন, মোহাম্মদ খালেদ, করিম সিকদার, মঞ্জুর আহমেদ মঞ্জু, নাসিরুল হক নওয়াব, আনোয়ারুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

দপ্তর সম্পাদক ইউনুসুর রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বিগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী বিষণ্ণ পরিস্থিতিতে দেশে বিচলিত হওয়ার মতো এক রাজনৈতিক শূন্যতা দৃশ্যমান হয়েছে বলে এ সভা মনে করে। ১৪ দল তথা মহাজোটের সরকার সংসদ নির্বাচনের পরে আওয়ামী লীগের একক দলীয় সরকারে পরিণত হয়েছে। শুধু তাই নয়, রাজনৈতিক সরকারের সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক পদ্ধতিতে হওয়ার প্রবণতা ধীরে ধীরে কমে এখন তা প্রশাসনের একটি ক্ষুদ্র গোষ্ঠীর মধ্যে সীমিত হয়ে পড়েছে। আওয়ামী লীগ বহির্ভূত সংসদ সদস্যদের জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনার জন্য দেওয়া নোটিশ উপেক্ষা করে জাতীয় সংসদে সমালোচনামূলক আলোচনার সুযোগও সীমিত করে ফেলা হচ্ছে। অপরপক্ষে সাম্প্রদায়িকতা, সন্ত্রাস ও অদৃশ্য শক্তি নির্ভর বিএনপি-জামায়াত জোট জনগণের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। ফলে সৃষ্টি হয়েছে এক আশঙ্কাজনক রাজনৈতিক শূন্যতা। গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ব্যবস্থার জন্য এ ধরনের রাজনৈতিক শূন্যতা বিপদ সংকেত।

সভায় আগামী অক্টোবরে বাংলাদেশ জাসদের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সূত্রঃ সমকাল