পুলিৎজার পেল মিয়ানমারে কারাবন্দী রয়টার্সের দুই সাংবাদিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে মুসলিম রোহিঙ্গাদের গণহত্যা, ধর্ষণ ও বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়ার ঘটনা নিয়ে প্রতিবেদন করে সাংবাদিকতার নোবেল খ্যাত পুলিৎজার পুরস্কার পেয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

রোহিঙ্গা গণহত্যা ছাড়াও মধ্য আমেরিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকতে চাওয়া শরণার্থীদের ছবি তুলে আরও একটি ক্যটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছে তারা। আর এর মাধ্যমে টানা দ্বিতীয়বার পুলিৎজার পুরস্কার পেল। রয়টার্স ২০০৮ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে নামী এই পুরস্কারটি সাতবার পেল।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা গণহত্যা নিয়ে কাজ করার জন এবারের পুলিৎজার পুরস্কার পাওয়া রয়টার্সের দুজন সাংবাদিক গত ৪৯০ দিন ধরে মিয়ানমারে কারাবন্দী। রাখাইনে নৃশংস রোহিঙ্গা গণহত্যার চিত্র উন্মোচনে ভূমিকা রাখেন তারা।

গতকাল সোমবারের ২০১৯ সালের পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে পুরস্কার প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ। মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমস ও দ্য ওয়াশিংটন পোস্টও দুটি করে পুলিৎজার পুরস্কার জিতেছে।

আন্তর্জাতিক প্রতিবেদনের জন্য ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের পাশাপাশি মার্কিন সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি) পুরস্কৃত হয়েছে। ইয়েমেন যুদ্ধের নৃশংসতা তুলে ধরায় পুলিৎজার জিতেছে এপি।

রয়টার্সের প্রধান সম্পাদক স্টিফেন জে অ্যাডলার বলেন, ‘কাজের স্বীকৃতি পাওয়া অবশ্যই একটা সন্তুষ্টির বিষয়। তবে এই মুহূর্তে আমাদের চেয়েও বেশি গুরুত্বর্পূর্ণ রোহিঙ্গা এবং মধ্য আমেরিকার অভিবাসীরা। তাদের দিকে আমাদের মনোযোগ দিতে হবে।’