হাসপাতালে ভর্তি সুবীর নন্দী

অনলাইন ডেস্কঃ
দেশবরেণ্য গায়ক সুবীর নন্দী গুরুতর অসুস্থ। রোববার (১৪ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে তাকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে। শিল্পীর কন্যা ফাল্গুনী নন্দী জাগো নিউজকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জনান, বর্তমানে একটু ভালো আছেন তার বাবা। দুশ্চিন্তার কিছু নেই। ফাল্গুনী সবার কাছে তার বাবার জন্য দোয়া চেয়েছেন। সেইসঙ্গে হাসপাতালে দর্শনার্থীদের ভিড় না করতেও চিকিৎসকদের নির্দেশের কথা জানান তিনি।

এদিকে শিল্পী সুবীর নন্দীর আত্মীয়া অভিনেত্রী ঊর্মিলা শ্রাবন্তী করের মা তৃপ্তি কর বিস্তারিত জানিয়ে বলেন, ‘পরিবারসহ সিলেট থেকে ফিরছিলেন সুবীর নন্দী। উত্তরার কাছাকাছি আসতেই হঠাৎ তার শারীরিক অবস্থা খুব খারাপ হয়ে যায়। বাধ্য হয়ে তাকে ট্রেন থেকে নামিয়ে এম্বুলেন্সে করে সিএমএইচে নেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও জানান, ‘দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির অসুখে ভুগছেন সুবীর নন্দী। ঢাকার ল্যাব এইডে নিয়মিতই ডায়ালাইসিস করান। কিন্তু উত্তরা থেকে ল্যাব এইড যেতে অনেক সময় লাগে। তাই আমিই দায়িত্ব নিয়ে সিএমএইচে উনাকে ভর্তি করিয়েছি। একজন বরেণ্য মানুষ, তার সুস্থতা আগে জরুরি ছিলো।

আমার প্রয়াত স্বামী অনন্ত কর সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ছিলেন। সেই পরিচয়েই জনপ্রিয় শিল্পী সুবীর নন্দীকে জরুরিভাবে সিএমএইচে নিতে পেরেছি। সঠিক সময়ে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে পেরে ভাল লাগছে।’

তিনি জানান, এই মুহূর্তে উনার চিকিৎসা চলছে। একটু ভাল আছেন তিনি। তাকে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে। কিছু পরীক্ষাও করা হয়েছে। অবস্থা বুঝে কাল বা পরশু তাকে ল্যাব এইডে স্থানান্তর করা হবে।

নন্দিত কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী ৪০ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে গেয়েছেন আড়াই হাজারেরও বেশি গান। বেতার থেকে টেলিভিশন, তারপর চলচ্চিত্রেও উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান। ১৯৮১ সালে তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘সুবীর নন্দীর গান’ ডিসকো রেকর্ডিংয়ের ব্যানারে বাজারে আসে।
তবে চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম গান করেন ১৯৭৬ সালে আব্দুস সামাদ পরিচালিত ‘সূর্যগ্রহণ’ চলচ্চিত্রে।

চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করে চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন।করেছেন তিনি। আর চলতি বছরে সংগীতে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার সুবীর নন্দীকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত করেছে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ