দক্ষিণ মিঠাছড়ি চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টোর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার বন্ধে চেয়ারম্যান সমিতির নিন্দা ও প্রতিবাদ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
কক্সবাজারের রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টোর বিরুদ্ধে কুচক্রীমহল কর্তৃক ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচার বন্ধে রামু উপজেলা ইউপি চেয়ারম্যান সমিতিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

বিবৃতিতাদারা বলেন, দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টোর বিরুদ্ধে পত্রিকায় মিথ্যা, বানোয়াট ও কুরুচিপূর্ণ সংবাদ পরিবেশিত হয়েছে। যা একজন ন্যায় বিচারক ও ইউনিয়নের একজন প্রকৃত সেবক চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টোর নামে মানহানিকর সংবাদ প্রকাশ করার ঘটনাটি পরিকল্পিত ও গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মনে করেছেন। তারা প্রকাশিত মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিদাতারা হলেন, রামু উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি নুরুল ইসলাম সিকদার, সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম, গর্জনিয়া চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, খুনিয়া পালং চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ, কচ্ছপিয়া চেয়ারম্যান আবু ইসমাঈল মোঃ নোমান, ঈদগড় চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভূট্টো, জোয়ারিয়ানালা চেয়ারম্যান কামাল শামসুদ্দিন প্রিন্স, কাউয়ারখোপ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, রাজারকুল চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান, রশিদ নগর চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল হক জুয়েল, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মুল্লিক প্রমুখ।

বিবৃতি দাতারা বলেন- দক্ষিণ মিঠাছড়ি চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টোর বিরুদ্ধে ভূমিদস্যু কর্তৃক কয়েকটি পত্রিকায় পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেছে বলে অভিযোগ এনে যে সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে তা সম্পুর্ণ ভূয়া, মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। ইউনুচ ভূট্টো একজন সৎ যোগ্য চেয়ারম্যান। তার যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলক। মূলত চেয়ারম্যানের উন্নয়ন কর্মকান্ড ও জনপ্রিয়তার প্রতি ইর্ষান্বিত হয়ে একটি কুচক্রিমহলের ইন্দনে এসব মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। শুধুমাত্র তার সামাজিক ও রাজনৈতিক মান মর্যদা ক্ষুন্ন করার কু-মানসে এধরণের মিথ্যা অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র চালিয়ে চেয়ারম্যানকে হয়রানীর ছাড়া আর কিছু নয়।

আমরা এসব ষড়যন্ত্রকারি ভূমিদস্য, সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সবাইকে রুখে দাড়ানোর আহবান জানাচ্ছি।

এদিকে দক্ষিণ মিঠাছড়ি চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টো জানান, তিনি শপথ গ্রহনের পর থেকে অত্যন্ত সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি বলেন-এলাকার সামগ্রিক উন্নয়নসহ মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে পরিষদের সকল সদস্যদের সাথে নিয়ে ইউনিয়নকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি এবং আমি সবসময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছি। তিনি আরো জানান, পাঁচ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবির বিষয় যে অভিযোগ বা অপপ্রচার ছাড়ানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। চাঁদা দাবির বিষয় প্রশ্নই আসেনা। এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বলে তিনি দাবি করেন।

তিনি দখলবাজ, ভূমিদস্যুদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক শাস্তির দাবি জানিয়ে বলেন, দক্ষিণ মিঠাছড়ির জনসাধারণের জানমাল নিরাপত্তার স্বার্থে এলাকায় কোন ভূমিদস্যু, সন্ত্রাসী, ইয়াবা, ব্যবসায়ী মাস্তানের স্থান হবে না।