সর্বশেষ সংবাদঃ

ছড়া ও কবিতা

শহিদ রাসেলের দুইটি কবিতা

প্রেমপত্র: একটা আকাশ, বিশাল ভেলায় ছুটছে উদাসীন একটা বিকাল, একমনে সে বাজায় করুণ বীণ। কিছু সময় উত্তরে বা দখিণ জানালায় বেশকিছু রাত গভীরতর একলা কেটে যায়। অভিমান আর চঞ্চলতায় হাসি লুকায় চোখে ডাকলে তারে ফণা তুলে ঠোঠের কিনারে। এমনি করেই দিনগুলো আজ সপ্তাহ হয়ে মাসে, অপেক্ষার ঐ পাল তোলা মন ঝিমিয়ে পড়ে শেষে। খুব যতনে প্রেমের ঝর্ণা পড়ছে গড়িয়ে, খুব ...

বিস্তারিত »

নঈম আল ইস্পাহানের কবিতা

প্রাচীরের ভাঙা পাঁজর: আমার সমস্ত আকাশ জুড়ে তোমার ভাবনার চাদর, শীতার্ত প্রেমিক আমি,অসহায় ভাঙা পাঁজর। তোমার অবহেলায় নিশ্বাস বিচলিত,প্রতিদিন, বেঁচে থাকার আশঙ্কা,অপেক্ষার শেষে খুবই ক্ষীণ। আমার সমস্ত ভালোবাসার প্রাচীর জুড়ে তুমি আর তুমি, খরস্রোত অথৈ সাগরের নাবিক আমি,তোমার চরণ চুমি। যখন,তখন তুমি আমাকে বিদঘুটে চোখে তাকিয়োনা, তোমার প্রেমের মুগ্ধতা চাই,ভয়ার্ত প্রেমিক হতে চাইনা! তুমি আমাকে মৃত্যু দাও,ভালোবাসায় হত্যা করো, বিনিময়ে ...

বিস্তারিত »

মুহম্মদ নূরুল হুদার কবিতা

রহমতের স্বাধীনতা: তখনো ওঠেনি লাল সূর্য। ডিমের লালির মতো টলটলে লাল। তরমুজ-ফালির মতো তরতাজা লাল। কুয়াশায় জমে আছে পানের বরজ। শিশিরের ফোটা জমে আছে সেগুন পাতায়। বানর-বানরী গায়ে গা লাগিয়ে গতরে গরম জমায়। বনমোরগ ঘাড় বাঁকিয়ে বনমুরগীর দিকে তাকায়। চূড়া ছেড়ে তরতর ছুটে চলে পাহাড়ি ঝর্নাধারা। রাতজাগা পাখি হঠাৎ ডানা ঝাপটায়। তরঙ্গিত মুরুংবালার আদলে গতর বাগিয়ে পুবদিগন্ত আড়াল করে শুয়ে ...

বিস্তারিত »

প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষুর কবিতা

নাগরিক বৈষম্য একের পর এক অগ্নিকান্ড ঘটছে শহরের বস্তিগুলোতে, মাথাগুজার ঠাই হারিয়ে কোথায় যাবে তারা কনকনে এই শীতে। এই আগুন নেহাত দুর্ঘটনা নাকি উচ্ছেদের পরিকল্পিত দুর্বৃত্তপনা, কোনটা সত্য কোনটা মিথ্যা মাথায় ঢুকছেনা। কেউ থাকে দশতলায় কেউ থাকে এয়ারকন্ডিশন ব্যবস্থাপনায় আমরা তাতে মোটেও হিংসা করিনা, রাষ্ট্র তোমার আর কিছু সন্তানের মাথাগুজার ঠাই হয়না তোমার কুলে, তোমার ভুলে এই বৈষম্য মানিনা, মানিনা।

বিস্তারিত »

সুকুমার বড়ুয়ার দুটি ছড়া

মামা বড় মামা সেজো মামা সারে গামা সারে গামা ছোট মামা মেজো মামা ওঠা নামা ওঠা নামা নাই মামা কানা মামা ধরো ধামা ধরো ধামা চাঁদ মামা বাঘ মামা গায়ে দেয় লাল জামা   কমকম অক্ষম সক্ষম টক কম রে ডব্লিউ ডব্লিউ ডট কম রে শালগম চাল-গম মাপ কম রে আইকম এমকম কত কম রে নাক কম চোখ কম মোক্ষম ...

বিস্তারিত »

মোঃ দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়ার কবিতা

মানবতায় কাদা রাখাইন সেনা সদস্য হত্যা ছিল অজুহাত, সারাবিশ্ব এটা শুনে হয়ে গেল কাত ৷ জাতিসংঘ দিল তাকে নৃতাত্বিক নির্মূল অাখ্যা, নির্যাতিত মানব জন পাবে কি তার ব্যাখ্যা ৷ পালিয়ে অাসা রোহিঙ্গারা নির্যাতনের বিবরণ দিচ্ছে, অাশ্রিত রোহিঙ্গাদের দায় ভার কে নিচ্ছে ? মানবাধিকার সংবাদ সংস্থা পাচ্ছে যে অাজ বাধা, ক্ষমতাসীন সু চীর শরীরে রক্ত ঝরা কাদা ৷ রাখাইনে মানবাধিকার অবরুদ্ধ ...

বিস্তারিত »

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংখ্যালঘুদের উপর আক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় কুমার চক্রবর্তীর কবিতা

হোলি গ্রেল: আমি সংখ্যালঘু, কোয়ারান্টিন, মনে রেখো— বিলোপন ছাড়া কিছুই নেই আমার, দেখো শরীর আমার এক কলোসিয়াম: ফাঁকা ফাঁকা আর আক্রমণীয়, প্রত্ন যেখানে রচনা করেছে এক মর্মন্তুদ মুখবন্ধ; কাসান্দ্রা আমাকে সাবধান করেছিল বলেছিল: ওই দর্পণাশ্রিত মুখগুলো তোমাকে একদিন বায়ুকোণে একা রেখে ঠিক ঠিক চলে যাবে তুমি নির্জন হবে, হবে অন্তরিত। সময়কে মোকাবিলা করতে গিয়ে আমি হারিয়েছি আমার স্মৃতিগুলো —যারা একদিন ...

বিস্তারিত »

ভাগ্যধন বড়ুয়ার কবিতা

মায়াপাশ তবু কেন ফিরে চাও? পথে পথে প্রাণের জোয়ার নবীন জরায়ু ছাড়ে সুখের অতল থেকে গাঢ় অন্ধকারে নীরবে প্রতিমা গড়ে দিগন্তরেখায় মানব-প্রচ্ছদে কায়া ভেতরে বিবর্ণ পৃষ্ঠার অনুভূতি বাসের বিষাক্ত ধোঁয়া আচরিত মন কেবল জীবন টানে মরণের ভেলা বেদনার পাড়ে পাড়ে….. মৃত্যুদূত আসে, হাসে দৃষ্টি বিনিময়ে যায় ফিরে এই বেলা বড়ো দেরি পদচিহ্ন আঁকে হাঁটি হাঁটি সাত পা…….. সাতটি পদ্মের বুকে ...

বিস্তারিত »

নঈম আল ইস্পাহানের কবিতা

তোমায় নিয়ে প্রেম কাব্য লিখবোনা: ভেবেছিলাম তোমায় নিয়ে প্রেম কাব্য লিখবোনা, বুকের দগ্ধ দহন কাউকে আমি আর দেখাবোনা। একলা রবো,শান্ত পথিকের মতো বিদঘুটে নগরীতে, নাছোড়বান্দা প্রেমিক কোন তনয়ার পিছু পথের পর পথে। সবাই অস্বীকার করবে,আমি নব্য সভ্যতার বাইরের কেউ, প্রাণনাশক বঙ্গোপসাগরে হিংস্র কাল বৈশাখী ডেউ। বিশ্বাশলেষী এক মুখ ডেকে রাখা সাধু পর্যবেক্ষক, ব্যর্থ প্রেমের কাব্য শিক্ষাদানকারী এক শিক্ষক। আমি তোমাকে ...

বিস্তারিত »

নঈম আল ইস্পাহানের কবিতা

তোমাকে ছাড়া একদিন: তোমাকে ছাড়া একদিন ও আমি থাকতে পারিনা, মনে হয় আমি বেঁচে নেই,নেই অস্তিত্বের ঠিকানা। তোমাকে ছাড়া অর্ধেক দিন ও থাকতে কষ্ট হয়, এই বুঝি মারা যাবো,সারাক্ষণ সে ভয় আর সংশয়। তোমাকে ছাড়া একটি ঘন্টাও আমার কাটেনা; বুকে চিন চিন করে খুব কষ্ট হয়,মন মানেনা। তুমি আমাকে বুঝোনা,বুঝোনা হৃদয়ের তরঙ্গমালা, চাঁদেরকণার সাথে ঘনিষ্ঠ কথোপকথন,করি খেলা। তোমাকে কতোটা ভালোবাসি ...

বিস্তারিত »