নাইক্ষ্যংছড়ির বহুল প্রতীক্ষিত সদর ইউপির উপ নির্বাচন আজ হচ্ছে না: ৬ মাসের জন্য স্থগিত

আব্দুল হামিদ, বাইশারী:
বান্দরবান জেলার ১নং নাইক্ষ্যংছড়ির বহুল প্রতীক্ষিত সদর ইউপির উপ নির্বাচন আজ হচ্ছে না। সদর ইউনিয়ন পরিষদের এই উপনির্বাচনের উপর ৬ মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালত।

হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও মোহাম্মদ উল্লাহর বেঞ্চে ২৭ সেপ্টেম্বর রোহিঙ্গা ইস্যুতে মামলাটি করেছেন বিছামারা এলাকার মৃত আবদুর রহমানের ছেলে আলী হোসেন।

এতে বিবাদী করা হয়েছে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশন সচিব, জেলা প্রশাসক, জেলা নির্বাচন অফিসার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে।

৩০ অক্টোবর বিকাল থেকে বিষয়টি গুজব আকারে ছড়িয়ে পড়লেও রাত ৯টায় নির্বাচন স্থগিত করার বিষয়টি আনুষ্ঠানিক ভাবে স্বীকার করেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার অরুন উদয় ত্রিপুরা।

জানা গেছে, গত ২৭ সেপ্টেম্বর বাদীর পক্ষে সুর্পিমকোর্টের আইনজীবি মোহাম্মদ আবু সায়েম হাইকোর্টের ৬নং বেঞ্চে পিটিশন (নং-১৩০১০) মামলাটি করেছেন। সূত্র মতে, নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা নাগরিক ভোটার হয়েছেন এমন অভিযোগ আনা হয় মামলার বিবরণীতে।

এদিকে ৩০ অক্টোবর রবিবার উপজেলা সদরে সকাল থেকে উম্মুক্ত মঞ্চ এলাকা থেকে ব্যালট পেপার, ব্যালট বাক্সসহ সব ধরনের ভোটের সরঞ্জাম নিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসাররা নিজ নিজ কেন্দ্রে পৌছেছেন। তবে সন্ধ্যার পর ভোট স্থগিত হওয়ার বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি নিশ্চিত হতে অনেকেই নির্বাচন দপ্তরসহ সাংবাদিকদের কাছে যোগাযোগ শুরু করেন।

উল্লেখ্য, আজ ৩১ অক্টোবর সোমবার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ১নং সদর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী বর্তমানে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।