বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে রাজত্ব পরিচলনা করা থাই রাজা ভূমিবল পরলোকে

প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু:
বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে রাজত্ব পরিচলনা করা থাই রাজা ভূমিবল আদুলিয়াদেজ ৮৮ বছর বয়সে পরলোক গমণ করেছেন।
৭০ বছর ধরে রাজার দায়িত্ব পালন করে আসা ভূমিবল থাইল্যান্ডে অত্যন্ত শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন। থাইল্যান্ডের চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানে তিনি অন্যতম প্রধান ভূমিকা পালনকারী হিসেবেও বিবেচিত হয়েছিলেন। বৌদ্ধদের অনেকে মনে করে থাকেন যে, ধার্মিক এই রাজা কোন আধ্যাত্মিক জ্ঞানও লাভ করে থাকতে পারেন।

সাম্প্রতিক সময়ে তিনি স্বাস্থ্যসমস্যায় ভূগছিলেন। কয়েকমাস ধরে তাকে জনসম্মুখেও দেখা যায়নি। গেল বছরের বেশিরভাগ সময় তিনি হাসপাতালেই কাটিয়েছেন।

বিবিসি সূত্র মতে, রাজা ভূমিবলের মুত্যুতে এখন তার উত্তরাধিকারী ৬৩ বছর বয়স্ক ক্রাউন প্রিন্স মাহা ভাজিরালঙকর্ণ থাইল্যান্ডের নতুন রাজা হবেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান ওচা।

টেলিভিশনে এক ভাষণে প্রায়ুথ চান ওচা বলেন, থাইল্যান্ড একবছর রাজার মৃত্যুর জন্য শোক করবে এবং একমাসের জন্য সব বিনোদনমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখা হবে। রাজা ভূমিবল সম্পর্কে তিনি বলেন, “তিনি (ভূমিবল) এখন স্বর্গে আছেন এবং সেখান থেকে হয়ত তিনি থাইল্যান্ডবাসীকে দেখছেন।”

কিডনি জটিলতায় ভুগতে থাকা রাজা ভূমিবল আদুলিয়াদেজের হেমোডায়ালাইসিস করার সময় তার রক্তচাপ কমে যায়। পরে কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্রের মাধ্যমে শ্বাস-প্রশ্বাস চালিয়ে তার রক্তচাপ স্বাভাবিক করার পর তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল।

কিন্তু ‘জম্মিলে মরিতে হবে, অমর নাহিক ভবে’ এই চিরন্তন সত্যকে অতিক্রম করতে পারলেন না রাজা ভূমিবলও।। তিনি সেখানে বৃহস্পতিবার জাহাঁপনা সিরিরাজ হাসাপাতালে স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে পরলোকযাত্রা করেন।

thaiking2-copyতার মৃত্যুর খবর পেয়ে হাসপাতালের বাইরে জড়ো হয়েছে অসংখ্য শোকার্ত মানুষ। রাজার জন্য প্রার্থনা করছে তারা । শ্রদ্ধা জানাচ্ছে ফুল দিয়ে।

উল্লেখ্য, সাংবিধানিক রাজতন্ত্রের দেশ হিসাবে থাইল্যান্ডে রাজার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা খুব কম হলেও থাইরা ভূমিবলকে তাদের ঐক্যের প্রতীক হিসাবে সম্মান করেছে। থাই জনগণের কাছ থেকে অনেকটা দেবতুল্য সম্মান পেয়েছিলেন রাজা ভূমিবল।

তার মৃতদেহ এখন ব্যাংককের সিরিরাজ হাসপাতাল থেকে গ্রান্ড প্যালেসে নেওয়া হবে। সেখানে শুক্রবার মৃতদেহ ধোয়ার পর ১শ’ দিনের জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে তাঁকে শায়িত রাখা হবে। এরপর শুরু হবে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে সমাহিত করার প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়া শুরু হতে একবছরও লেগে যেতে পারে।

১৯৪৬ সালে ভাইয়ের মৃত্যুর পর রাজা ভূমিবল মাত্র ১৮ বছর বয়সে থাইল্যান্ডের সিংহাসনে আরোহণ করেন। চলতি বছরের জুনে তার সিংহাসনের আরোহনের ৭০তম বার্ষিকী পালন করা হয়।