মহেশখালীতে জোড়া আত্মহত্যা

এ.এম হোবাইব সজীব:
কক্সবাজারের মহেশখালীর হোয়ানকে প্রেমিকজুটি আত্মহত্যা করেছেন। উপজেলার ছনখোলা পাড়া এলাকার প্রবাসী ফরিদুল আলমের স্ত্রী শারমিন আকতার (৩০) ও তার পরকীয়া প্রেমিক একই এলাকার মৃত বাচাঁ মিয়ার পুত্র মো. ইলিয়াছ প্রকাশ কালা চাঁন (২০) বুধবার গভীর রাত্রে একই সময়ে যুগল নিজ নিজ বাড়ির শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, প্রায় ১২ বছর পূর্বে একই এলাকার ইউসুফ জালালের পুত্র ফরিদুল আলমের সাথে পার্শ¦বর্তী নবাব মিয়ার মেয়ে শারমিন আকতারের সাথে শরীয়তের বিধি বিধানমতে, পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিবাহের ৪ বছর পর ঘর সংসার কে ঢেলে সাজানোর জন্য ফরিদুল আলম বিদেশে পাড়ি জমায়। স্বামীর অনুপস্থিতে শারমিন আক্তার পার্শ্ববর্তী যুবক ইলিয়াছের সাথে পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে সামাজিক ভাবে দু’পক্ষের লোকজনকে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে এরপরে ও পরকীয়া প্রেমের রশি টানাটানি চলতে থাকে। ২১ সেপ্টেম্বর গভীর রাত্রে দু’জনকে অবৈধ মেলামেশা অবস্থায় জনতা ধৃত করে পরবর্তীতে তাদের স্ব-স্ব পারিবারিক অভিভাবকদের নিয়ন্ত্রণে পাঠিয়ে দেন।

শেষ পর্যন্ত তারা সকলের অজান্তে নিজ নিজ শয়নকক্ষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। এদিকে লাশ দুটির ময়না তদন্তের পর তাদের দুই জনের দাপন সম্পন্ন হয়েছে।

এ ব্যাপারে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ বাবুল চন্দ্র বণিক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।