মাদ্রাসা প্রধানদের সার্বক্ষণিক প্রতিষ্ঠানে থাকার নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক :
দেশের মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধানরা শ্রেণি পাঠদান চলাকালে বেশিরভাগ সময় মাদ্রাসায় থাকেন না। অপক্ষোকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ কাজেও মাদ্রাসার বাইরে কিংবা রাজধানীতে একাধিক দিন অবস্থান করেন। এই পরিস্থিতি বিবেচনায় মাদ্রাসা প্রাধানদের সার্বক্ষণিক মাদ্রাসায় থাকার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। একইসঙ্গে জরুরি প্রয়োজনে বাইরে যাওয়ার জন্য মুভমেন্ট রেজিস্টার চালু করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

রবিবার (২২ মে) মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক কে এম বহুল আমীন স্বাক্ষরিত ওই অফিস আদেশ জারি করা হয়।

অফিস আদেশে দেশের সরকারি, এমপিওভুক্ত, অনুদানভুক্ত, এমপিওবিহীন, অনুদানবিহীন কামিল, ফাজিল, আলিম, দাখিল ও এবতেদায়ি স্তরের মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, সুপার, এবং এবতেদায়ি প্রধানদের এই নির্দেশনা যথাযথভাবে পালন করতে বলা হয়।

অফিস আদেশে বলা হয়, মাদ্রাসা পরিচালনায় প্রতিবছর সরকারের প্রচুর অর্থ ব্যয় হয়। বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী এসব মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। অনেক মাদ্রাসায় অধিদফতরের আওতাধীন বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে ভবন নির্মাণ ও সংস্কার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ মাদ্রাসা পরিদর্শনের সময় অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানদের নিকট থেকে তথ্য সংগ্রহ করে থাকেন। সার্বিকভাবে অভিভাবক হিসেবে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানের দায়-দায়িত্ব ব্যাপক।

এতে আরও বলা হয়, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিভিন্ন সভা, অফিসের প্রয়োজন, পরীক্ষা, কমিটি, স্বীকৃতি, নিয়োগ, অন্যান্য কাজের অজুহাত দেখিয়ে প্রায়ই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানরা ক্লাস চলাকালীন সময়ে মাদ্রাসার বাইরে অবস্থান করেন। অনেক সময় মাদ্রাসা থেকে দূরে এমনকি রাজধানীতে একাধিক দিন অবস্থান করেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানদের মাদ্রাসা থেকে অন্যত্র গমনাগমনের কোনও তথ্য বা রেকর্ড মাদ্রাসায় সংরক্ষণ করা হয় না। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানরা মাদ্রাসায় অনুপস্থিত থাকলে মাদ্রাসার পাঠদান, শ্রেণি কার্যক্রম যথাযথভাবে হয় না। অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারীরা যথাযথ দায়িত্ব পালনে অবহেলার সুযোগ পেয়ে যান। ফলে মাদ্রাসার মানসম্মত শিক্ষাসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা ব্যাহত হয়। অথচ মাদ্রাসার বাইরের অনেক কম গুরুত্বপূর্ণ কাজ অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানদের পরিবর্তে উপাধ্যক্ষ, সহ-সুপার, যথাযথ প্রতিনিধি, অন্য যেকোনও শিক্ষক-কর্মচারীর মাধ্যমে সম্পন্ন করানো যেতে পারে। তাছাড়া অধ্যক্ষ, সুপারের অন্যত্র গমনের তথ্য মাদ্রাসায় মুভমেন্ট রেজিষ্টার চালু করে সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, সুপার, এবতেদায়ি প্রধানকে নিয়মিতভাবে মাদ্রাসায় উপস্থিতি এবং মাদ্রাসার পাঠদান, শ্রেণি কার্যক্রম চলাকালে সার্বক্ষণিকভাবে মাদ্রাসায় অবস্থান করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়।

সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন