রামুতে পেটিকাবদ্ধ অনুষ্ঠানে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি : প্রয়াত সারমিত্র মহাথের ছিলেন সম্প্রীতি-শান্তির প্রতীক

সোয়েব সাঈদ, রামু :
রামু উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বন বিহারের অধ্যক্ষ, বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু প্রয়াত ভদন্ত সারমিত্র মহাথের’র পেটিকাবদ্ধ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার-৩(সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, প্রয়াত সারমিত্র মহাথের ছিলেন সম্প্রীতি ও শান্তির প্রতীক। তিনি আমৃত্যু মানুষের কল্যাণে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের, প্রজ্ঞামিত্র মহাথের’র শোক কাটতে না কাটতেই সারমিত্র মহাথেরকে হারিয়ে শুধু বৌদ্ধ সস্প্রদায় নয় সকল সম্প্রদায়ের মানুষ শোকে মুহ্যমান। সারমিত্র মহাথের’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সকলের সমন্বয়ে জাতীয়ভাবে সম্পন্ন করা হবে।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) দিনব্যাপী পেটিকাবদ্ধ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি কমল এসব কথা বলেন।

দিনব্যাপী আয়োজনে বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ ভদন্ত ড.শীলানন্দ মহাথের সভপতিত্ব করেন। এতে আশীর্বাদক ছিলেন উপ-সংঘরাজ ভদন্ত প্রিয়দর্শী মহাথের। প্রধান ধর্মদেশক ছিলেন উপ-সংঘরাজ ভদন্ত শাসনপ্রিয় মহাথের।

রামু প্রজ্ঞামিত্র ভিক্ষু সমিতির সাধারণ সম্পাদক ভদন্ত শীলমিত্র থের ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক, পেটিকাবদ্ধ অনুষ্ঠানের সদস্য সাংবাদিক নীতিশ বড়ুয়ার সার্বিক তত্বাবধানে অনুষ্ঠিত স্মৃতিচারণ ও ধর্ম সভার উদ্বোধনী দেশনা করেন সারমিত্র মহাথেরর শিষ্য ধর্মমিত্র থের।

প্রজ্ঞাবিনয় ভিক্ষুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রামু ঊপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সোহল সরওয়ার কাজল, একুশে পদকপ্রাপ্ত বৌদ্ধ নেতা ড. সুকোমল বড়ুয়া, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষন বড়ুয়া, উপজেলা প্রকৌশলী মঞ্জুর হাসান ভূইঁয়া, জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামাল শামসুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, রামু উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন মল্লিক, বৌদ্ধনেতা বংকিম বড়ুয়া, রাজু বড়ুয়া, সুবীর বড়ুয়া বুলু, রবীন্দ্র বিজয় বড়ুয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আবছার কামাল সিকদার প্রমুখ।

দুই পর্বের অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বন বিহার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক টিটু বড়ুয়া, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সীপন বড়ুয়া।

স্মৃতিচারণ ও ধর্মসভায় বিশেষ ধর্মদেশনা করেন, বৌদ্ধ ভিক্ষু ধর্মদর্শী মহাথের, বিজয় রক্ষিত মহাথের, ধর্মপাল মহাথের, জিনালংকার মহাথের, রাহুলাপ্রিয় মহাথের, দেবমিত্র মহাথের, শিলানন্দ মহাথের, করুণাশ্রী মহাথের, মেত্তাবংশ মহাথের, অধ্যাপক জ্ঞানরত্ন মহাথের, অতুলানন্দ মহাথের, শীল রক্ষিত মহাথের, অনুরুদ্ধ মহাথের, সুমনানন্দ মহাথের, দয়ানন্দ মহাথের, প্রজ্ঞারত্ন মহাথের, কুশলায়ন মহাথের, শাসনপ্রিয় মহাথের, জ্যোতির্ময় মহাথের, জ্যোতিপাল মহাথের, কে শ্রী জ্যোতিসেন থের, প্রজ্ঞানন্দ থের, রূপানন্দ থের, ইন্দ্রবংশ থের, জ্যোতিমিত্র থের প্রমুখ ভিক্ষু সংঘ।

উল্লেখ্য, ভদন্ত সারমিত্র মহাথের হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাকালিন শারীরিক অবস্থার অবনিত হলে ডাক্তারের পরামর্শে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে গত ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় পরলোক গমন করেন।

তিনি মৈত্রী প্রদীপ প্রয়াত ভদন্ত প্রজ্ঞামিত্র মহাথের মহোদয়ের সুযোগ্য উত্তরসূরি ও প্রথম শিষ্য, রামু প্রজ্ঞামিত্র ভিক্ষু সমিতির সভাপতি, রামু আর্য্যবংশ ভিক্ষু সংস্থার ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি, বাগ্মীপ্রবর, বিচিত্র ধর্মকথিক, সম্প্রীতি বান্ধব একজন বৌদ্ধ ভিক্ষু ছিলেন।

উক্ত শোকময় পুণ্যানুষ্ঠানে জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে হাজার ভক্তের অংশ গ্রহনে ও সহযোগীতায় পেটিকাবদ্ধ অনুষ্ঠান সুষ্টুভাবে সম্পন্ন হওয়ায় উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞামিত্র বনবিহার পরিচালনা কমিটি ও উত্তর মিঠাছড়ি গ্রামবাসী সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।