সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারম্যান খোদেস্তা বেগম রীনা : রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়িতে ৯৫০ পরিবারকে ন্যায্যমূল্যে টিসিবি’র পণ্য বিতরণ

সোয়েব সাঈদ, রামু :
রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়িতে সারাদেশে টিসিবি পন্য বিতরণের প্রথম দিনে গত রবিবার ৯৫০ পরিবারকে ন্যায্যমূল্যে পণ্য বিতরণ করা হয়েছে। আসন্ন রমজান উপলক্ষে নিম্ন আয়ের পরিবারকে ভর্তুকি মূল্যে খাদ্যপণ্য বিতরণ বর্তমান সরকারের একটি যুগান্তকারি পদক্ষেপ। এরফলে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রভাব কমবে এবং খেটে খাওয়া, সাধারণ মানুষ আর্থিকভাবে লাভবান হবে।
সোমবার (২১ মার্চ) রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন-দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের প্রথম নারী চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেত্রী খোদেস্তা বেগম রীনা।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন- রবিবার রামু উপজেলা প্রশানের তত্বাবধানে এবং দক্ষিণ মিঠাছডি ইউনিয়ন পরিষদের সার্বিক সহযোগিতায় দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নে আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তাদের ডিলারের মাধ্যমে দক্ষিণ মিঠাছডির ফকিরামুরা মাদ্রসা মাঠে কার্ডধারীদের মাঝে দিনব্যাপি টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়েছে। পন্য বিতরণকালে রামুর ইউএনও প্রণয় চাকমা, রামু থানার অফিসার ইনচার্জ সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এরআগে নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে টিসিবির এসব পণ্য পৌঁছে দিতে সুবিধাভোগী পরিবারের তালিকা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে স্থানীয় পরিষদের সদস্য ও গ্রাম পুলিশ সার্বিক সহযোগিতা করে।

প্রতিটি পরিবার কার্ডের মাধ্যমে সাশ্রয়ীমূল্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে একসঙ্গে তিনটি পণ্য দেয়া হয় । প্রথম ধাপে প্রতিটি উপকারভোগী পরিবার প্রতি লিটার ১১০ টাকা দরে ২ লিটার সয়াবিন তেল, প্রতি কেজি ৫৫ টাকা দরে ২ কেজি চিনি ও প্রতি কেজি ৬৫ টাকা দরে ২ কেজি মসুর ডাল কিনতে পেরেছেন। এই প্যাকেজটির সর্বমোট মূল্য সরকার কর্তৃক নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৬০ টাকা।

চেয়ারম্যান খোদেস্তা বেগম রীনা আরো জানান- সরকারের এ মৎহ উদ্যোগকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এলাকার সরকার বিরোধি একটি চক্র টিসিবির পন্য বিক্রিয়ে অতিরিক্ত অর্থ নেয়ার ভিত্তিহীন প্রচারনা চালিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ‘প্রতিবাদী মিঠাছড়ি’ ও ‘আজকের মিঠাছড়ি’ নামক দুইটি ফেইক আইড়িতে এসব অপপ্রচার চালানো হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই ধরনের গুজব ছড়ানোর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন সময়োপযোগী উদ্যোগকে জনগণের নিকট প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য সরকার বিরোধী মহল এসব গুজব ছড়াচ্ছে। এসব মিথ্যা অপপ্রচারকারিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে এলাকার রাজনৈতিক, সামাজিক নেতৃবৃন্দ, পরিষদের সচিব, সকল ইউপি সদস্য-সদস্যা ও গ্রামপুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।