রামুর বঙ্গবন্ধু উৎসবে নজরুল ইসলাম বাবু এমপি : বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় একটি মানুষও শিক্ষা ছাড়া থাকবে না

খালেদ শহীদ, রামুঃ
নারায়নগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত। তাদের ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আমরা সোনার বাংলা কায়েম করবো। বাংলাদেশে একটি মানুষও শিক্ষা ছাড়া থাকবে না, খাওয়ার অভাবে মরবে না। মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে কষ্ট হবে না। এমন একটি সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে মুজিব শতবর্ষে আমরা শপথ করে, জয় বাংলা বলে সামনে এগিয়ে যাবো। মুজিবের আদর্শে এই সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলবো। পঞ্চান্ন হাজার বর্গমাইলের বঙ্গবন্ধুর দেখা মানচিত্রের বাংলাদেশের লক্ষকোটি মানুষ, আজ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েছে।

                      রামুর বঙ্গবন্ধু উৎসবের পঞ্চম দিনে প্রধান অতিথির বক্তৃতা দিচ্ছেন, নারায়নগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু

মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) রাত ১২টায় রামু স্টেডিয়ামের বঙ্গবন্ধু উৎসবের পঞ্চম দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলা বিজয়ের ৫০ বছর ও জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে রামুতে বঙ্গবন্ধু উৎসবের পঞ্চম দিনের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম কবির মেম্বার।

প্রধান অতিথি নজরুল ইসলাম বাবু এমপি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যদি না হতো, পৃথিবীর মানচিত্রে পঞ্চান্ন হাজার বর্গমাইলের লাল-সবুজের পতাকার এই বাংলাদেশের জায়গা হতো না। আমাদের থাকতো না পিতৃপরিচয়, জাতিগত পরিচয়। বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে জাতিগত পরিচয় দিয়েছেন। বীর বাঙালি মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর স¦প্ন দেখতেন না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু মুজিব মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে যে, আমাদের লাল-সবুজের পতাকা দিয়ে গেছেন। সেই পতাকার সুরক্ষায় আজ দেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ। শেখ মুজিবের যোগ্য উত্তরসূরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতির মেরুকরণে পরিবর্তন এনেছেন। বাংলাদেশে খাদ্যের নিশ্চয়তা হয়েছে, শিক্ষার নিশ্চয়তা হয়েছে। আমরা এখন দরজা খোলে রাতে ঘুমাতে পারি।

ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি বলেন, যারা বঙ্গবন্ধু মুজিবকে হত্যা করেছে, তাদেরকে আইনের আওতায় এনে ফাঁসির কাষ্টে ঝুলিয়ে বিচার করতে সক্ষম হয়েছি। জাতির পিতাকে যারা হত্যা করেছে, তারা আজ পদদলিত হয়েছে। তারা ফাঁসির কাষ্টে ঝুলেছে। পাপ কাউকে ক্ষমা করে না। সেই পাপী-পাষান্ডদের বিচার কার্য সম্পন্ন হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু উৎসবের কো-চেয়ারম্যান তপন মল্লিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু উৎসবের পঞ্চম দিনের আলোচনা সভায় শুভেচ্ছা বক্তৃতা প্রদান করেন, বঙ্গবন্ধু উৎসব উদযাপন পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে রাজনৈতিক ও সমাজিক নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।

রামুতে বঙ্গবন্ধু উৎসবের পঞ্চম দিনে রাতের অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়, রামুর সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘প্রত্যাশা’, ‘সরগামালয়’, ‘রেভ্যূলেশন-৫২’ দলীয় সংগীত ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক নাটক ‘দ্রোহী’ মঞ্চয়ান করে রামু নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘সমস্বর’। কবিতা আবৃত্তি করেন, মাষ্টার মোহাম্মদ আলম, আদিত্য সিকদার প্রিন্স ও অংকিতা বড়ুয়া টুইংকেল। একক সংগীত পরিবেশন করে মোস্তফা, সংগীত বড়ুয়া, কাকলি বড়ুয়া, বাহাদুর, মোবারক, দিনা বড়ুয়া ও চ্যানেল আই সেরাকন্ঠী মারুফা জান্নাত ত্রিশা।