যুদ্ধকে ‘না’ বলে বিদায় নিল রাশিয়ার টিভির সব কর্মী

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
রাশিয়া সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে যুদ্ধকে ‘না’ বলে লাইভে এক সঙ্গে বিদায় নিল দেশটির একটি টেলিভিশন স্টেশন রেইন টিভি’র সব কর্মী।

ইউক্রেইনে সামরিক অভিযানের বিরোধিতার মাধ্যমে ‘সীমা লঙ্ঘন করায়’ রুশ কর্তৃপক্ষ টেলিভিশনটির সম্প্রচার বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল।

এরপর নাটকীয়ভাবে লাইভ সম্প্রচারের মধ্যে টেলিভিশনটির সব কর্মী এসে বিদায় নেওয়ার ঘোষণা দেয় বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সসংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়।

টিভি স্টেশনটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা নাতালিয়া সিন্দেয়েভা বলেন, তাদের সব কর্মী একসঙ্গে লাইভ সম্প্রচারে এসে ‘যুদ্ধকে না’ বলে একে একে বিদায় নেয়।

এরপর রেইন টিভির এক বিবৃতিতে সম্প্রচার অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়।

রেইন টিভির কর্মীদের বিদায়ের ভিডিওটি ইতোমধ্যে সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেইনে সামরিক অভিযান শুরু করে। এরপর থেকে কড়াকড়ি চলছে রুশ সংবাদ মাধ্যমগুলোর উপর।

গত বৃহস্পতিবার আরেকটি রেডিও স্টেশন ‘ইকো অব মস্কো’কে তাদের সম্প্রচার বন্ধ করে দিতে হয় কর্তৃপক্ষের নির্দেশে।

এই রেডিওতে ইউক্রেইনের সাংবাদিকদের সাক্ষাৎকার প্রচার করা হয়েছিল, যেখানে রুশ সামরিক অভিযানের ভয়াবহতা তুলে ধরা হয়।

সম্প্রচার বন্ধ হলেও সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে খবর দিয়ে যাচ্ছে ‘ইকো অব মস্কো’। আর এর প্রধান সম্পাদক আলেক্সেই ভেনেদিক্তভ রয়টার্সকে বলেছেন, কোনো চাপেই নিজেদের সম্পাদকীয় নীতিতে কোনো পরিবর্তন আনবেন না তারা।

ইউক্রেইন যুদ্ধে শুরুর পর রাশিয়ায় সোশাল মিডিয়ার উপরও সরকারের নিয়ন্ত্রণ চলছে।

সূত্রঃ বিডিনিউজ