কারিগরি ও মাদরাসায় ২০২৩ সালেও সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা

শিক্ষা ডেস্কঃ
করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২৩ সালে কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের এসএসসি-দাখিল এবং এইচএসসি-আলিম পরীক্ষা সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে নেওয়া হবে। সম্প্রতি কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের সংশ্লিষ্টদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সূত্রে জানা গেছে, ২০২৩ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ১৫০ কর্মদিবসের পুনর্বিন্যাস সিলেবাস নির্ধারণ সংক্রান্ত সভা সম্প্রতি কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মহসীন।

এ বিষয়ে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) সদস্য মো. মশিউজ্জামান বলেন, শিক্ষাবর্ষের সাধারণ নিয়ম অনুযায়ী ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের নবম শ্রেণির ক্লাস শুরু হওয়ার কথা ছিল ২০২১ সালের ১ জানুয়ারি। আর এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হওয়ার কথা ছিল একই বছরের ১ জুলাই। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকে। পরে গত বছরের ১২ সেপ্টেম্বর সপ্তাহে মাত্র দুই দিন করে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়।

তিনি বলেন, ক্লাসের হিসাবে ওই শিক্ষাবর্ষের এসএসসি পরীক্ষার্থীরা নবম শ্রেণিতে প্রায় ৯ মাস সরাসরি পাঠদান থেকে বঞ্চিত ছিল। অন্যদিকে, এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হলেও আট মাস সশরীরে ক্লাস করতে পারেনি। এতে তাদের শিক্ষার ঘাটতি থাকার আশঙ্কা রয়েছে।

মশিউজ্জামান আরও বলেন, করোনার কারণে এ বছর (২০২২ সালে) ফের এক মাস শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। এতে গত ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীরা নবম শ্রেণিতে মাত্র ৩৫ দিন ক্লাস করার সুযোগ পেয়েছে। ২ মার্চ থেকে সশরীরে ক্লাস শুরু হলেও তাদের শিক্ষার ঘাটতি থেকেই যাবে। তাই ২০২২ সালের পরীক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস ২০২৩ সালের এইচএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জন্য প্রযোজ্য হতে পারে।

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের পরিচালক (কারিকুলাম) প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, এসএসসি শিক্ষাক্রম নবম ও দশম শ্রেণিতে বিভক্ত। তবে কারিগরি শিক্ষার কিছু পার্থক্য রয়েছে। কারিগরি শিক্ষায় নবম শ্রেণিতে অধ্যয়ন শেষে বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেয় ও দশম শ্রেণিতে অধ্যয়ন শেষে বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেয়। পরে দুই শ্রেণির বোর্ড সমাপনী পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর গড় করে ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

তিনি বলেন, করোনার কারণে ২০২৩ সালের এসএসসি শিক্ষার্থীরা গত বছর নবম শ্রেণির ক্লাস করতে পারেনি। ফলে তাদের শিক্ষায় ঘাটতি রয়েছে। এ ঘাটতি দূর করতে দশম শ্রেণিতে সম্পূর্ণ সিলেবাসে পাঠদান অব্যাহত রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, ২০২১ শিক্ষাবর্ষের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঁচ বিষয়ের ওপর গত বছরের ৬ ডিসেম্বর বোর্ড ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমানে ওই শিক্ষার্থীরা দশম শ্রেণির ক্লাস করছে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের এইচএসসি ও ডিপ্লোমা ইন কমার্স শিক্ষাক্রমের একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু আগামী সেপ্টেম্বরে ও পরীক্ষা হবে ২০২৩ সালের মে মাসে। আর দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু আগামী অক্টোবরে ও পরীক্ষা হবে ২০২৩ সালের জুন মাসে। তাই সংশ্লিষ্টদের মতামতে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বৈঠক করে তাদের মতামতের ভিত্তিতে পরবর্তী কার্যক্রম নেওয়া হতে পারে বলেও জানান তিনি।

সভায় আরও বলা হয়, ২০২৩ সালের এসএসসি/দাখিল (ভোকেশনাল) ও এইচএসসি/আলিম (ভোকেশনাল) পরীক্ষার সিলেবাস প্রণয়নের বিষয়ে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টদের নিয়ে দ্রুত একটি সভা করবে। সভায় কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব সভাপতিত্ব করবেন।

সূত্রঃ জাগোনিউজ