ওয়ার্নকে হারিয়ে শোকের সাগরে ক্রিকেট বিশ্ব

ক্রীড়া ডেস্কঃ
অস্ট্রেলিয়ান গ্রেট রড মার্শের মৃত্যুশোক কাটিয়ে ওঠার আগেই ক্রিকেট আঙিনায় এলো আরও বড় ঝড়। শেন ওয়ার্নকে হারিয়ে স্তম্ভিত পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। মাত্র ৫২ বছর বয়সেই স্পিন জাদুকর চলে গেলেন ওপারে, মেনে নিতে পারছেন না কেউ।

দুই মহারথীকে হারানোর কষ্ট, নিশ্চিতভাবেই এটি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের সবচেয়ে কষ্টের দিনগুলোর একটি। সাবেক কিপার-ব্যাটসম্যান মার্শের মৃত্যুর ১২ ঘন্টার মধ্যে চলে গেলেন ওয়ার্ন।

শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় সময় মাঝরাতে ওয়ার্নের মৃত্যুর খবর জানায় তার ম্যানেজমেন্ট সংস্থা। হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭০৮ উইকেট শিকারি ওয়ার্নের মৃত্যুতে ব্যথিত ভিভিয়ান রিচার্ডস। অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করতে পারছেন না ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান।

“বিশ্বাস হচ্ছে না। আমি শকড। এটা সত্যি হতেই পারে না…চিরবিদায় শেন ওয়ার্ন। এই মুহূর্তে আমার কেমন লাগছে, বর্ণনা করার ভাষা নেই। ক্রিকেটের বিশাল ক্ষতি হয়ে গেল।”

ওয়ার্নের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেকবার মুখোমুখি হয়েছেন শচিন টেন্ডুলকার। ২২ গজে তুমুল লড়াই চললেও মাঠের বাইরে তাদের জমত দারুণ। ভারতীয় ব্যাটিং গ্রেটের মনে পড়ছে সেসব কথা।

“তোমাকে মিস করব ওয়ার্নি। মাঠে বা মাঠের বাইরে কখনোই তোমার সঙ্গে সময়টা নিরস কাটেনি। আমাদের মাঠের দ্বৈরথ ও বাইরের আড্ডা সবসময় আমার হৃদয়ে থাকবে। তোমার মনে ভারত সবসময় একটি বিশেষ জায়গা নিয়ে ছিল এবং ভারতীয়দেরও কাছেও তুমি ছিলে বিশেষ। খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলে।”

ওয়েস্ট ইন্ডিজ কিংবদন্তি ব্রায়ান লারা হতবাক। মানতে পারছেন না তিনিও।

“এই মুহূর্তে বাকহীন। পুরো বিষয়টি কিভাবে মেনে নিব, জানি না। আমার বন্ধু আর নেই!! সর্বকালের সেরা ক্রীড়াবিদদের একজনকে আমরা হারিয়েছি। তার পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। বিদায় ওয়ার্নি!!মিস করব তোমায়।”

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদেরও ছুঁয়ে গেছে ওয়ার্নের মৃত্যুর সংবাদ। অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমকে নাড়িয়ে দিয়েছে খবরটি।

“শেন ওয়ার্ন আর নেই, এই সংবাদ শুনে আমি স্তম্ভিত। বিদায় লেজেন্ড। খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলেন…”

বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানও বিশ্বাস করতে পারছেন না।

পাকিস্তানের বোলিং গ্রেট ওয়াকার ইউনিসের মতে, আজ ক্রিকেটের দুঃখের দিন।

“শেন ওয়ার্ন আর নেই…আমি হতবাক, আমি বিধ্বস্ত। বিশ্বাসই হচ্ছে না যে আমি এই খবর শুনছি। আমাদের ক্রিকেট অঙ্গনের জন্য খুব খুব কষ্টের দিন। আমার প্রজন্মের সেরা বড় তারকা চলে গেল। চিরবিদায় লেজেন্ড। তার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি সমবেদনা।”

ওয়ার্নের সঙ্গে একটি ছবি টুইট করে পাকিস্তানের সাবেক গতিতারকা শোয়েব আখতার লেখেন, ব্যথা প্রকাশের ভাষা জানা নেই তার।

“কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নের মৃত্যুর হৃদয় বিদারক সংবাদটি মাত্রই শুনলাম। আমি কতটা ব্যথিত তা শব্দে প্রকাশ করা যাবে না। কী দারুণ এক ক্রিকেটার, লেজেন্ড এবং কী অসাধারণ এক মানুষ।”

পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, শাদাব খান, শাহিন শাহ আফ্রিদিসহ আরও অনেকে শোক প্রকাশ করেছেন।

পাকিস্তানের আব্দুল কাদিরের মতো গ্রেটরা যদিও লেগ স্পিন শিল্পটিকে বাঁচিয়ে রেখেছিলেন, ওয়ার্ন সেখানে যোগ করেছিলেন নতুন গ্ল্যামার ও আক্রমণাত্মক মনোভাব। এই স্পিন বোলিংকে নিয়ে গেছেন অন্য উচ্চতায়। পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম বললেন সেটাই।

“বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছে। তাকে হারানোটা ক্রিকেট বিশ্বের জন্য অনেক বড় ক্ষতি। আক্ষরিক অর্থেই তিনি তার জাদুকরী লেগ স্পিন দিয়ে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করেছেন। ক্রিকেট আপনাকে সবসময় মিস করবে। তার পরিবার, বন্ধু ও ভক্তদের প্রতি আমার সমবেদনা।”

নিজেদের অনুভূতি তুলে ধরেছেন শ্রীলঙ্কার দুই কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়াবর্ধনে ও কুমার সাঙ্গাকারা এবং অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, থিসারা পেরেরাসহ আরও অনেকে।

২৪ বছর পর পাকিস্তান সফরে করছে অস্ট্রেলিয়া। রাওয়ালপিন্ডিতে শুক্রবার শুরু হয়েছে দুই দলের প্রথম টেস্ট। এদিনই একের পর এক দুঃসংবাদ শুনল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট। দলের সঙ্গে থাকা ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না।

“খুব তাড়াতাড়ি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন খেলাটির দুই কিংবদন্তি। আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। এটা চরম কষ্টদায়ক। মার্শ ও ওয়ার্নের পরিবারের জন্য আমার দোয়া ও সমবেদনা। বিশ্বাসই করতে পারছি না আমি। আপনাকে মিস করব।”

কষ্ট ছুয়ে গেছে মাইকেল ভন, কেভিন পিটারসেন, ইয়ান বেলদেরও। সবাই শোক প্রকাশ করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ইংলিশ সাবেক অলরাউন্ডার ইয়ান বোথামের চোখে ওয়ার্ন ছিলেন সেরাদের একজন।

“আমি খেলার মাঠে ও মাঠের বাইরে একজন অসাধারণ বন্ধুকে হারালাম। আমার চোখে সে ‘সেরাদের একজন’। জ্যাকসন সামার ও ব্রুকের (ওয়ার্নের মেয়ে ও ছেলে) প্রতি আমার সমবেদনা।”

আইপিএল দল রাজস্থান রয়্যালসের পরামর্শক হিসেবে কাজ করা ওয়ার্নকে কাছ থেকে দেখা ও তার সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা হয়েছে বেন স্টোকসের। অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তিকে পাশে পাওয়ার এই সুযোগটা ইংলিশ অলরাউন্ডারের দারুণ সম্মানের।

“অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি। আপনাকে জানা ও আপনার সঙ্গে কাজ করাটা ছিল সম্মানের। এই মানুষটি লেজেন্ড।”

ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও সময়ের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন বিরাট কোহলির কাছে অবিশ্বাস্য লাগছে ওয়ার্নের মৃত্যুর সংবাদ।

“জীবন এতটাই আনপ্রেডিক্টেবল। খেলাটির গ্রেটদের একজন এবং মাঠের বাইরে আমার চেনা এমন একজনের মৃত্যু আমি মেনে নিতেই পারছি না…”

ভারতের বর্তমান অধিনায়ক রোহিত শর্মা লিখেছেন, সত্যিকারের একজন কিংবদন্তিকে হারিয়েছে ক্রিকেট।

“আমি সত্যিই আমার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি, খুবই দুঃখজনক। একজন সত্যিকারের কিংবদন্তি ও খেলাটির চ্যাম্পিয়ন আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। বিদায় শেন ওয়ার্ন…এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না।”

সূত্রঃ বিডিনিউজ