প্রস্রাবের যে ৭ সমস্যা হতে পারে করোনার লক্ষণ

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুধু শ্বাসযন্ত্রেরই ক্ষতি করে না, বরং শরীরের বিভিন্ন গুরত্বপূর্ণ অঙ্গেও প্রভাব ফেলে। করোনা মহামারির এই দুই বছরে বিভিন্ন গবেষণায় উঠে এসেছে যে, কীভাবে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে হৃদযন্ত্র, পেশি, মস্তিষ্কসহ শরীরের অন্যান্য সংবেদনশীল অঙ্গ প্রভাবিত হচ্ছে।

এখন নতুন সমীক্ষায় জানা গেছে, করোনাভাইরাস মূত্রতন্ত্রকেও প্রভাবিত করতে পারে। যার ফলে মূত্রনালীর সংক্রমণে (ইউটিআই) ভুগছেন অনেক করোনা রোগী।

ইউটিআই কি?

মূত্রনালীর সংক্রমণই হলো ইউটিআই। যাকে বলা হয় ইউরেনারি ট্যাক্ট ইনফেকশন। মূত্রতন্ত্রের যে কোনো অংশকে প্রভাবিত করতে পারে এই সংক্রমণ যেমন- কিডনি, মূত্রনালি ও মূত্রাশয়ে।

বেশিরভাগ সময় সংক্রমণের সঙ্গে নিম্ন মূত্রনালি ও মূত্রাশয় জড়িত থাকে। এক্ষেত্রে ব্যাকটেরিয়া বাইরে থেকে শরীরে প্রবেশ করে। ফলে সংক্রমণ ও প্রদাহের সৃষ্টি হয়। যাকে বলে ইউটিআই।

যদিও পুরুষদের তুলনায় নারীরা ইউটিআইয়ের সমস্যা বেশি দেখা যায়। কারণ নারীদের যৌনাঙ্গেই বেশি ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায়।

যদি সংক্রমণ শুধু মূত্রাশয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে তাহলে এটি যন্ত্রণাদায়ক ও বিরক্তিকর হতে পারে। দীর্ঘদিন এ সমস্যায় ভুগলে সংক্রমণ কিডনিতে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

কোভিড ও ইউটিআই এর মধ্যে সংযোগ কী?

যদিও ইউটিআইয়ের সমস্যা হাইজিন, যৌন ক্রিয়াকলাপ, জন্মনিয়ন্ত্রণ ওষুধ গ্রহণ ও মেনোপজের কারণেও এটি ঘটতে পারে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, কোভিড ১৯ সংক্রমণের কারণেও এটি ঘটতে পারে।

এই ভাইরাসের সংক্রমণে নিম্ন ট্র্যাক্টকেও প্রভাবিত করে। করোনা আক্রান্ত গুরুতর রোগীর মধ্যে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, তাদের মধ্যে প্রস্রাবের সংক্রমণও দেখা গেছে।

ইউটিআই ও কোভিডের উপর অন্যান্য গবেষণা

এক গবেষণায় দেখা গেছে, সার্স কোভ-২ সংক্রমণ ও পুরুষ যৌনাঙ্গের মধ্যে যোগসূত্রতা রয়েছে। করোনা আক্রান্ত পুরুষ রোগীর মধ্যে যারা যৌনাঙ্গে অস্বস্তি বা ব্যথায় ভুগছেন তারা করোনাভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট ইউটিআইয়ের একটি সাধারণ লক্ষণ হতে পারে।

গবেষণা চলাকালীন, দেখা গেছে 8 জন রোগী অণ্ডকোষের অস্বস্তিতে, ১৪ জনের যৌনাঙ্গ ফুলে যাওয়া, ১৬ জন ব্যথায় ও একজন অ্যারিথেমায় ভুগছিলেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে ইউটিআইয়ের সাধারণ লক্ষণগুলোর মধ্যে আছে-

১. সব সময়ই প্রস্রাবের চাপ
২. প্রস্রাব করার সময় জ্বালাপোড়া
৩. ঘন ঘন অল্প পরিমাণে প্রস্রাব হওয়া
৪. প্রস্রাবের রঙে পরিবর্তন
৫. প্রস্রাবের রং লাল, গোলাপি বা রঙ হওয়া
৬. তীব্র গন্ধযুক্ত প্রস্রাব ও
৭. তলপেটে ব্যথা।

কোভিডের কারণে ইউটিআইতে ভুগছেন কি না তা শনাক্ত কররার উপায় কী?

করোনা সংক্রমণের কারণে ইউটিআই ইনফেকশন হবে কি না তা জানার যদিও কোনো নিশ্চিত উপায় নেই। তবে শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করা জরুরি। যদি পরীক্ষা পজিটিভ আসে তার মানে আপনার ইউটিআই ইনফেকশন হয়েছে করোনা সংক্রমণের কারণে।

আর যদি করোনা নেগেটিভ আসে তাহলে বুঝতে হবে স্বাভাবিক ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের কারণে ঘটেছে ইউটিআই। এজন্য দায়ী ই-কোলি নামক একটি ব্যাকটেরিয়া। যা প্রাকৃতিকভাবে আপনার শরীরে উপস্থিত থাকে।

আপনার যদি ইউটিআই থাকে তাহলে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখুন ও সঠিক চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের পরামর্শ করুন।

সাধারণ ক্ষেত্রে ইউটিআই থেকে সেরে উঠতে সাধারণত ৪-৭ দিন সময় লাগে। তবে যদি এই সংক্রমণ কোভিড-১৯ এর কারণে হয়ে থাকে তাহলে সুস্থ হতে আরও বেশি সময় নিতে পারে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ