ব্রণ হওয়ার গোপন কারণ

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ
চুল কিংবা বালিশের কভার পরিষ্কার না থাকলেও ব্রণ হতে পারে। খাদ্যাভ্যাস, ঘুম চক্র, জীবনযাত্রা বা ত্বকের সমস্যা ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে ব্রণ হয়। জানা কারণগুলো ছাড়াও অজানা কিছু কারণেও ব্রণের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ফেমিনা ডটইন’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে জানানো হল বিস্তারিত।

ভালো মতো চুল পরিষ্কার না করা

সঠিকভাবে চুল পরিষ্কার না করা কেবল চুলের ক্ষতি করে না বরং তা ত্বকের ক্ষতির জন্যও দায়ী। চুল ভালো মতো পরিষ্কার করা না হলে জীবাণু ও ব্যাক্টেরিয়ার আবাসস্থল তৈরি করে। ফলে কপালে ব্রণ দেখা দেয়। তাই ভালো মতো মাথার চুল পরিষ্কার করা উচিত।

ময়লা বালিশের কভার

রূপচর্চায় মনযোগী হলেও ব্রণ কমাতে বালিশের কভার পরিবর্তনের গুরুত্ব অনেকেই দেন না। ময়লা বালিশের কভারে লেগে থাকা ময়লা, ত্বকের তেল ও সিবাম মিলেমিশে মুখ বিশেষ করে থুতনিতে ব্রণ সৃষ্টি করে। তাছাড়া মেইকআপের প্রসাধনীও বালিশের কভারে লেগে থাকতে পারে, যা থেকে পরে মুখের সংস্পর্শে এসে ব্রণ সৃষ্টি করে।

মানসিক চাপ

মানসিক চাপ বিষের মতোই ভয়ানক। এর ফলেও ত্বকে ব্রণ দেখা দিতে পারে। ব্রণ ছাড়াও অকালে বয়সের ছাপ, বলিরেখা, অতিরিক্ত সিবাম নিঃসরণ ইত্যাদির জন্য মানসিক চাপ দায়ী।

তৈলাক্ত প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া

ব্যস্ততা বা পছন্দ- যে কোনো কারণেই হোক না কেনো বর্তমানে প্রক্রিয়াজাত খাবারের চাহিদা বেশ বেড়েছে। এসব খাবার তেল, চিনি ও কার্বহাইড্রেইটে ভরপুর এসব দ্রুত রক্তে মিশে ইন্সুলিনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। রক্তে অতিরিক্ত শর্করা থাকার কারণ হতে পারে ব্রণ। তাই খাবার বেছেই থেকে হবে।

মোবাইল ফোনের নোংরা স্ক্রিন

দিনের অধিকাংশ সময়ই আমরা ফোনের সঙ্গে ব্যয় করে থাকি। তাছাড়া যে কোনো জায়গায় গিয়ে খোলা স্থানেও মোবাইল ফোন ফেলে রাখি। ফলে সহজেই এতে জীবাণু ও ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধে।

মুখের সংস্পর্শে মোবাইল আসলে বা মোবাইল ফোন ব্যবহারের পর সেই হাত মুখে লাগলে বাইরের জীবাণূ ত্বকের সংস্পর্শে আসে। ফলে সহজেই ব্রেক আউট ও ব্রণের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সূত্রঃ বিডিনিউজ