রামুতে একদিনে ১৪ হাজার ৭৪০ জনকে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান

খালেদ শহীদ, রামুঃ
রামুতে শনিবার একদিনে ১৪ হাজার ৭৪০ জনকে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান করা হয়েছে। দেশব্যাপী এক কোটি মানুষকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার কার্যক্রমে গতকাল শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) একদিনে রামুতে ১১ হাজার ৯৫৩ জনকে প্রথম ডোজ করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান করা হয়। এ পর্যন্ত রামুতে ২ লক্ষ ৫৩ হাজার ৬৫০ জনকে প্রথম ডোজ, ১ লক্ষ ৭২ হাজার ৭৩৭ জনকে দ্বিতীয় ডোজ ও ৫ হাজার ৪৬ জনকে তৃতীয় ডোজ প্রদান সম্পন্ন করা হয়েছে। এ কার্যক্রম সরকারি নির্দেশ মতে চলমান থাকবে বলে জানান, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া।

ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া আমাদের রামু কে বলেন, দেশব্যাপী এক কোটি মানুষকে করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়ার কার্যক্রমের আওতায় শনিবার রামুতে ১১ হাজার ৯৫৩ জনকে প্রথম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়। পাশাপাশি দ্বিতীয় ও তৃতীয় ডোজ টিকাও দেয়া হয়েছে। রামু উপজেলার ৩ লক্ষ ৫৯ হাজার ৬৫ জন জনসংখ্যার মধ্যে ৭১ শতাংশকে প্রথম ডোজ, ৪৮ শতাংশকে দ্বিতীয় ডোজ প্রদান সম্পন্ন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, শনিবার জন্মনিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র কিংবা কোন নিবন্ধন ছাড়াই শুধুমাত্র মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে প্রথম ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে তাদের তথ্য নথিভুক্ত করে টিকা দেয়া হয়। তাদেরকে একটি টিকা কার্ড প্রদান করা হয়েছে। এই কার্ডই টিকার প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।

রামু স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, রামু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ইউনিয়ন হাসপাতাল, কমিউনিটি ক্লিনিক ও উপজেলা পরিষদ সহ রামু উপজেলা এগার ইউনিয়নের ৪৫টি টিকা কেন্দ্রে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান করা হয়। স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীদের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবকসহ ৩২৫ জন এ কার্যক্রমে সহায়তা করেন।

রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া বলেন, এখনও পর্যন্ত যারা করোনা ভাইরাসের প্রথম ডোজ টিকা নেয়নি, তাদের জন্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ ইউনিয়ন পর্যায়ের সাব ব্লকে প্রথম ডোজ টিকা প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এ ছাড়াও দ্বিতীয় ও তৃতীয় ডোজ টিকা প্রদান যথানিয়মে চলমান থাকবে। প্রয়োজন হলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মতে অতিরিক্ত কেন্দ্র বা বুথের মাধ্যমে টিকাদান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে উল্লেখ করে তিনি সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে ও মাস্ক পরার অনুরোধ জানান।