শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে রামু ক্রীড়া সংস্থার কাছে টাইব্রেকারে হেরেছে জেলা ফুটবল একাডেমি

খালেদ শহীদ, রামু :
রামু শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে মর্যাদার লড়াইয়ে রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে টাইব্রেকারে হেরেছে কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি। টুর্ণামেন্টের চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনালে জয় পেয়ে সেমি ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করেছে রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা। সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪ টায় রামু ষ্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত কোয়ার্টার ফাইনালে তারুণ্যে উদ্দীপ্ত মর্যাদার লড়ায়ে টাইব্রেকারে পরাজিত হয় কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি’।

খেলায় ম্যান অবদ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন, রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার মিডফিল্ডার কমল বড়ুয়া (জার্সি নং ৮)। সেরা খেলোয়াড় কমল বড়ুয়ার হাতে ট্রফি তোলেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো। সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করেন, সাবেক কৃতি ফুটবলার তরুন বড়ুয়া, বিমল বড়ুয়া ও খালেদ শহীদ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে, কক্সবাজার সদর-রামু-ঈদগাঁহ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এর প্রধান পৃষ্ঠপোষকতায় সোমবার বিকালে রামুতে অনুষ্ঠিত হয়েছে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২১ এর চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা।

এ খেলায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো। বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু উপজেলা প্রকৌশলী মনজুর হাসান ভুঁইয়া। রামু উপজেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। রামুতে সাবেক ফুটবলারদের সার্বিক পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২১। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, ওমর ফারুক মাসুম।

খেলার নির্ধারিত সময়ের প্রথমার্ধের ১ মিনিটে ও ১১ মিনিটে রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার অভিজ্ঞ স্টাইকার বিদেশি খেলোয়াড় বাহ্ নিশ্চত দুটো গোল করতে ব্যর্থ হয়। প্রথমার্ধের ২৫ মিনিটে গোলপোস্টের সামনে জটলা থেকে গোল করে দলের নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় নুরুল আলম (জার্সি নং ৯) ‘কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি’কে ১-০ গোলে এগিয়ে নেয়। এরপর গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে উঠে, রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা। দ্বিতীয়ার্ধের ৭ মিনিটে দর্শনিয় সটে গোল করে রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থাকে ১-১ গোলের সমতায় ফিরে নিয়ে আসে, দলের মিডফিলডার কমল বড়ুয়া। দ্বিতীয়ার্ধের শেষ মিনিট পর্যন্ত একজন বিদেশী খেলোয়াড় নিয়ে গঠিত ‘রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা’ বিপক্ষ দলকে আক্রমণে প্রতিহত করতে মরিয়া হয়ে উঠে। তারুণ্যের উদ্দীপ্ত ‘কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি’ দলীয় সমঝোতায় প্রতিপক্ষের আক্রমণকে প্রতিহত করে। নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-১ গোলে শেষ হলে, টাইব্রেকারে ফলাফল নিষ্পত্তি করা হয়। টাইব্রেকারে রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে ৫-৩ গোলে পরাজিত হয় কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি।

খেলা পরিচালনায় আলী হোসেন রেফারী, আহাম্মদ কবীর, শাহাদাত হোসেন ও সংগীত বড়ুয়া সহকারি রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন।

হলুদ কার্ড: রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার জাহেদ (জার্সি নং ৪)। কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমির শেয়ায়েত (জার্সি নং ৫), ইতুন (জার্সি নং ১১), হেলাল (জার্সি নং ১০)।

লাল কার্ড : রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার ইমন (জার্সি নং ১০) ও কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমির রুবেল (জার্সি নং ৭)।

রামু উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা:
ধীমান বড়ুয়া (অধিনায়ক), আনিস (গোলরক্ষক), সমীর বাবু, আশিক বড়ুয়া, জাহেদ, ইমন, সোহেল, দিদার, শেখ আহমদ, কমল বড়ুয়া, বিদেশি খেলোয়াড় বাহ্।
অতিরিক্ত খেলোয়াড়: উৎস, ইমন (২), তড়িৎ, সুফল, ইমরান।

কক্সবাজার জেলা ফুটবল একাডেমি:
রাহুল (গোলরক্ষক, অধিনায়ক), পিকু, শেফায়েত, হেলাল, বাবু রাখাইন, রুবেল, ইতুন, নুরুল আলম, ওসমান, সোহেল, হেলাল।
অতিরিক্ত খেলোয়াড়: বিজয়, ওসমান (২), জিশান, রনি, রশি, সৈকত, মো. খালেদ।